তোতো স্বাদের কারণে অনেকেই করলা খেতে পছন্দ করেন না। কিন্তু এই সবজিটি শরীরের জন্য দারুণ উপকারী। বিশেষ করে ডায়াবেটিস রোগীদের শর্করা নিয়ন্ত্রণে করলার তুলনা নেই।

বিশেষজ্ঞদের মতে, করলায় এমন সব উপাদান আছে যা ইনসুলিনের পরিমাণ বাড়াতে সাহায্য করে। করলাতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালশিয়াম, পটাশিয়াম, জিঙ্ক, আয়রন, ম্যাগনেশিয়াম ও বিভিন্ন প্রকার ভিটামিন পাওয়া যায়। এ কারণে নিয়মিত করলা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে।

কীভাবে খাবেন?

১. করলা নানা ভাবে খেতে পারেন। যদি তরকারিতে করলা খেতে পারেন, তা হলে কোনও অসুবিধেই নেই। এ ছাড়া করলা দিয়ে মাছও রান্না করতে পারেন।

২. করলা ভাল করে ধুয়ে শুকিয়ে নিন। তার পর ছোট করে কেটে মিহি করে গুঁড়ো করে সকালে খালি পেটে পানির সঙ্গে মিশিয়ে খান। এতে চারটিন এবং মোমরডিসিনের মতো উপকারী কিছু উপাদান রয়েছে। এগুলি ইনসুলিন নিঃসরণ বাড়ায়। পেশিতে গ্লাইকোজেন সংশ্লেষণকে উদ্দীপিত করে। করলা শরীরে গ্লুকোজ শোষণ কমাতেও সাহায্য করে।

৩. রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সবচেয়ে উপকারী উপায় হল করলার রস খাওয়া। রোজ সকালে খালি পেটে আধ কাপ করলার রস খেলে উপকার পাবেন।