সকালে ঘুম থেকে উঠে অনেকেরই শরীরচর্চার অভ্যাস আছে। শরীর সুস্থ রাখার জন্য শরীরচর্চা যেমন জরুরি, তার থেকেও বেশি জরুরি সঠিক খাদ্যাভাস। শরীরচর্চা করার আগে কিংবা পরে কী খাবার খাওয়া উচিত, তা অনেকেরই জানা নেই। অনেকেই আবার খালি পেটেই শরীরচর্চা শুরু করে দেন। কিন্তু এটা ঠিক নয়। খালি পেটে শরীরচর্চা করলে অল্পতেই ক্লান্ত হয়ে পড়বেন। আবার বেশি ভারী খাবার খেয়ে নিলেও অস্বস্তিবোধ হবে। পুষ্টিবিদদের মতে, যে কোনও খাবার খাওয়ার পর অন্তত দু’ঘণ্টা পর শরীরচর্চা করা উচিত।

পুষ্টিবিদদের মতে, শরীরচর্চা করার আগে যে কোনও ভাজাভুজি জাতীয় খাবার, ফ্যাট জাতীয় খাবার, মসলাদার খাবার, যে সব খাবারে বেশি পরিমাণে ফাইবার আছে, এমনকি সবজি এবং কার্বোনেটেড ড্রিঙ্কস একেবারেই খাওয়া উচিত নয়। এ সময় হালকা ধরনের খাবার খাওয়া উচিত। যেমন-

কলা-মধুর স্মুদি: শরীরচর্চার আগে পুষ্টিবিদরা কলা খাওয়ার পরামর্শ দেন। এটি শরীরে প্রয়োজনীয় শক্তি সরবরাহ করে এবং ইলেকট্রোলাইট হিসেবেও কাজ করে। এ ক্ষেত্রে দই, কলা, মধু একসঙ্গে মিশিয়ে স্মুদি তৈরি করে নিতে পারেন। তার মধ্যে ২টি কাঠবাদামও মেশাতে পারেন।

বিটের রস: শরীরচর্চার আগে শরীরে যেন পানির ঘাটতি না হয় সে দিকে নজর রাখা দরকার। শরীরচর্চার আগে বিট গাজরের রস খেতে পারেন। একটা বিট গাজরের রস করে নিয়ে তাতে দু’টেবিল চামচ আদার রস, লেবুর রস আর বিট লবণ মিশিয়ে নিন। এতে শরীরে শক্তির জোগানও হবে আর পানির ঘাটতিও হবে না।

ওট্‌স কলার পরিজে: শরীরচর্চা করতে যাওয়ার আগে ওট্স খেতে পারেন। দুধ হালকা গরম করে তাতে ভিজিয়ে রাখা ওট্স, চিয়া সিডস মিশিয়ে নিন। এ বার একে একে কাঠবাদাম, খেজুর, কলা আর সামান্য পরিমাণে দারচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। খেতে দারুণ সুস্বাদু এই খাবারটি শরীরচর্চা করার আগে খেতেই পারেন।