বর্ষাকাল মানেই হঠাৎ করেই ঝরঝরে বৃষ্টি, কখনও বা ভ্যাবসা গরম। মিশ্র এই আবহাওয়ায় বিভিন্ন রোগবালাই বাসা বাঁধে শরীরে। অনেকের ত্বকেও দেখা দেয় সমস্যা। এ সময় ঠিক মতো যত্ন না নিলে ত্বক হয়ে পড়ে নিস্তেজ ও প্রাণহীন। বর্ষাকালে ত্বকের সজীবতা ধরে রাখতে কিছু বিষয় অনুসরণ করুন। যেমন-

১. কখনও রোদ কখনও বৃষ্টির এই আবহাওয়ায় ত্বকের এক্সফোলিয়েশন অত্যন্ত জরুরি। এর ফলে ত্বকের মৃত কোষগুলি উঠে গিয়ে ত্বকের ছিদ্র পরিষ্কার হবে। কফি, চিনি, ওটসের গুঁড়ো ব্যবহার করে ঘরোয়া উপায়ে বাড়িতেই ত্বকের পরিচর্যা করে ফেলতে পারেন।

২. বর্ষাকালে সংক্রমণ জাতীয় সমস্যা বা অ্যালার্জি থেকে বাঁচতে ত্বক পরিষ্কার রাখা অত্যন্ত জরুরি। বার বার পানি দিয়ে মুখ ধুলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। তাই পানি ছাড়াও গোলাপজল, লেবুর রস, অ্যালো ভেরা জেল দিয়ে মুখের ত্বক পরিষ্কার রাখুন।

৩.ত্বক ভালো রাখার জন্য টোনারের গুরুত্ব অপরিসীম। প্রতি দিন ত্বকের যত্নের রুটিনে টোনিং রাখাটা জরুরি। ত্বকের ছিদ্রগুলি পরিষ্কার করে ব্রণর সমস্যা কমায় টোনিং। গোলাপজল সবচেয়ে ভালো প্রাকৃতিক টোনার। এ ছাড়া, লেবুর রস, শশার রস, গ্রিন টিও ভাল টোনার হিসাবে কাজ করে।

৪. বর্ষাকালে বেশি মেকাপ করলে ত্বকের ছিদ্রগুলি বন্ধ হয়ে যায়। ত্বকে ঠিক মতো বাতাস চলাচল করতে পারে না। ফলে ব্রণর মতো একাধিক সমস্যা বাড়তে পারে। তাই বর্ষাকালে অত্যাধিক মেকআপ এড়িয়ে চলুন। আবার মেকাপ করলেও তা সঠিক উপায়ে তুলে ফেলাটাও জরুরি।

৫. ত্বক ভালো রাখতে প্রচুর পানি খাওয়া প্রয়োজন। বর্ষাকালে যেহেতু ত্বক এমনিতেই রুক্ষ হয়ে যায় তাই বেশি পরিমাণে পানি খাওয়া প্রয়োজন। এতের ত্বকের শুষ্ক ভাব কমবে। ত্বক আর্দ্রও থাকবে।