৬টি সহজ ধাপে ঝকঝকে করে তুলুন আপনার রান্নাঘরের প্রয়োজনীয় সঙ্গীকে!

প্রতি বছর ঈদুল আজহায় গোটা বিশ্বের মুসলমানরা পশু কোরবানি দিয়ে থাকে। প্রতিটি কোরবানি ঈদেই অনেক বেশি মাংস একসঙ্গে সংরক্ষণের প্রয়োজনীয়তা তৈরি হয়, যা অনেকের জন্যই চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। দীর্ঘ সময় রাখলেও কাঁচা মাংস যাতে নষ্ট না হয়ে যায় সে জন্য সবচেয়ে চমৎকার ও ঝামেলাহীন সমাধান হচ্ছে রেফ্রিজারেটর। এ বছরের ঈদুল আজহা ঘনিয়ে আসছে। আপনার ফ্রিজের বর্তমান অবস্থা খেয়াল করে যদি দেখেন ভেতরে অতিরিক্ত বরফ জমে গেছে বা নিয়মিত ব্যবহারের ফলে একটু নোংরা হয়ে গেছে, তাহলে ঈদের আনুষ্ঠানিকতা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ার আগে বাসার ফ্রিজটিকে ঈদের জন্য প্রস্তুত করার এখনই সঠিক সময়।

আসুন জানা যাক, এই ঈদে কীভাবে নির্দিষ্ট কিছু ধাপ অনুসরণ করে সহজেই ফ্রিজকে ঝকঝকে করে তুলতে পারেন আপনিও!
১। প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম সংগ্রহ করুন
ফ্রিজ পরিস্কার করতে আপনার যেসব জিনিস প্রয়োজন হবে, সেগুলো হচ্ছে :পুরোনো তোয়ালে, বালতিতে বেকিং সোডা মেশানো পানি (চার কাপ পানিতে ২ টেবিল চামচ বেকিং সোডা), পেপার টাওয়েল বা ন্যাকড়া
মাল্টি-পারপাস সারফেস ক্লিনিং স্প্রে,ময়লা ফেলার ব্যাগ, কুলার,ভ্যাকুয়াম

২। নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন
নিজের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আপনাকে অবশ্যই সবার আগে ফ্রিজের প্লাগ খুলে রাখতে হবে এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় বৈদ্যুতিক সংযোগগুলোও বন্ধ করতে হবে। ফ্রিজে রাখা কোনো কিছু পড়ে যাতে মেঝে নোংরা না হয়, তা নিশ্চিত করতে মেঝেতে পুরোনো তোয়ালে বা ন্যাকড়া বিছিয়ে নিন।

৩। ফ্রিজ খালি করুন
প্রয়োজনীয় সব সতর্কতা অবলম্বনের পর ফ্রিজ থেকে সব খাবার সামগ্রী, তাক এবং ড্রয়ার বের করে ফেলুন। আপনি যদি লম্বা সময় নিয়ে খুব ভালোভাবে ফ্রিজটি পরিস্কার করতে চান, তবে যেসব পচনশীল খাবার রয়েছে সেগুলো কিছু সময়ের জন্য অন্য কোনো রেফ্রিজারেটরে রেখে দিতে পারেন। আগে থেকে প্রস্তুত থাকলে পরিস্কারের সময় কোনো কিছু নষ্ট হওয়ার ঝুঁকি থাকবে না।

৪। ফ্রিজের ভেতরের অংশ পরিস্কার করুন
চার কাপ গরম পানিতে দুই টেবিল চামচ বেকিং সোডা মেশানোর পর এই সল্যুশন দিয়ে ফ্রিজের ভেতরের অংশ পরিস্কার করুন। প্রথমে ভেজা কাপড় দিয়ে মুছুন, তারপর একটি তোয়ালে দিয়ে শুকিয়ে নিন। এই একই সল্যুশনে তাক এবং ড্রয়ারগুলো ভিজিয়ে রাখুন; স্ট্ক্রাব করুন, ধুয়ে ফেলুন এবং শুকিয়ে নিন। মনে রাখতে হবে, ফ্রিজের দরজার রাবারের সিল নোংরা থাকলে দরজা সঠিকভাবে বন্ধ হবে না; ফলে রেফ্রিজারেটরও ঠিকমতো কাজ করবে না।

৫। ফ্রিজের বাইরের অংশ পরিস্কার করুন
পরিস্কার মাইক্রোফাইবার তোয়ালের সাহায্যে মাইল্ড ডিটারজেন্ট/ভিনেগার পানি দিয়ে ফ্রিজের দরজা, হাতল এবং ক্যাবিনেটের উপরিভাগ পরিস্কার করুন।

৬। ফ্রিজ সঠিক তাপমাত্রায় আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন
সম্পূর্ণভাবে পরিস্কারের পর ড্রয়ার ও ক্যাবিনেট ঠিক জায়গায় রেখে ফ্রিজ চালু করুন এবং খাবার রাখার আগে ভেতরের তাপমাত্রা অন্তত ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার নিচে না আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। আপনার ফ্রিজে যদি ফাস্ট কুলিং ফিচার থাকে, তবে তা ব্যবহার করে দ্রুত ফ্রিজটি ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত করে নিতে পারেন।

নিরাপদ এবং স্বাস্থ্যকর উপায়ে এবারের কোরবানির মাংস সংরক্ষণ করতে উপরোক্ত ধাপগুলো সহজে অনুসরণ করে আপনার রেফ্রিজারেটরকে পরিস্কার করে নিতে পারবেন। তবে এই ঈদে নতুন ফ্রিজ কেনার কথাও আপনি ভেবে দেখতে পারেন। ঈদকে সামনে রেখে স্যামসাং, সিঙ্গার, এলজি, শার্প, হিটাচি, ওয়ালটন ইত্যাদির মতো বিভিন্ন কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড ইতোমধ্যে চমৎকার সব ফিচারযুক্ত নতুন মডেলের রেফ্রিজারেটর বাজারে নিয়ে এসেছে, সেই সঙ্গে আকর্ষণীয় মূল্যছাড় তো থাকছেই। 

বিষয় : ফ্রিজ পরিস্কার

মন্তব্য করুন