পাকিস্তানে সাদা বলের ক্রিকেটে সিরিজ হেরে ফিরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ঘরের মাঠে ওই ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার সুযোগ নিকোলাস পুরানের দলের। ওই লক্ষ্যে বাংলাদেশের বিপক্ষে ঘোষিত ওয়ানডে ও টি-২০ দলে একাধিক পরিবর্তন এনেছেন দ্বীপ দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচকরা। 

প্রথম বড় পদক্ষেপ টি-২০ ফরম্যাটে রোভম্যান পলকে সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব দেওয়া। আইপিএল খেলেছেন, সিপিএলে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। ভবিষ্যত চিন্তায় এবং দলের পরিকল্পনার অংশ করায় তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ওয়ানডের সহ-অধিনায়ক আছেন আলজারি জোসেপ। 

ওয়েস্ট ইন্ডিজ টি-২০ ফরম্যাটে দলে ফিরিয়েছেন অবেদ ম্যাককয়কে। এছাড়া সাদা বলের ক্রিকেটে ফিরিয়েছেন সামারাহ ব্রুক, কেমো পল, আলজারি জোসেপ ও ডেভন থমাসকে। বাদ পড়েছেন ফ্যাবিয়ান অ্যালেন, শেলডম কটরেল এবং রোস্টন চেজ। 

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের প্রধান নির্বাচক দেসমন্ড হায়নেস বলেছেন, ‘রোভম্যানের ক্রিকেট ইতিহাস জেনেই তাকে সহ-অধিনায়ক করা হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য ভবিষ্যত নেতৃত্ব তৈরি করা। ডেভন থমাস বৈচিত্রপূর্ণ ক্রিকেটার। অনেকদিক ধরেই দলের ঢুকার দুয়ারে সে কড়া নাড়ছেন। সে ব্যাট করতে পারে, ফিল্ডিংয়ে ভালো, উইকেটকিপিং করতে পারে এমনকি বোলিংও পারে।’ 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-২০ দল: নিকোলাস পুরান (অধিনায়ক), রোভম্যান পল (সহ-অধিনায়ক), সামারাহ ব্রুক, আকিল হোসাইন, আলজারি জোসেপ, ব্রেন্ডন কিং, কাইল মায়ার্স, অবেদ ম্যাকয়, কেমো পল, রোমারিও সেইফার্ড, অডেন স্মিথ, ডেভন থমাস, হেইডেন ওয়ালস জুনিয়র। রিজার্ভ: ডমিনিক ড্রাকস। 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওয়ানডে দল: নিকোলাস পুরান (অধিনায়ক), শেই হোপ (সহ-অধিনায়ক), সামারাহ ব্রুক, কেচি কার্টি, আকিল হোসাইন, আলজারি জোসেপ, ব্রেন্ডন কিং, কাইল মায়ার্স, গুডাকেশ মতি, কেমো পল, অ্যান্ডারসন ফিলিপ, রোভম্যান পাওয়ের, জাইডেন সিলস।