বর্ষাকালে বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি থাকে। ঘাম কম হলেও ত্বকের চিটচিটে ভাব কিছুতেই যায় না। ত্বক স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারাতে থাকে। বর্ষায় প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের যত্ন নিতে চাইলে ভরসা রাখতে পারেন নারকেল দুধে। এতে ভিটামিন ই, ফ্যাটি অ্যাসিড ও প্রোটিনের মেতা প্রয়োজনীয় পুষ্টির উপাদান রয়েছে। এসব উপাদান ত্বকের বিশেষ যত্ন নেয়। এই সময় নারকেলের দুধ ব্যবহারে যেসব উপককারিতা মেলে-

ত্বক আর্দ্র রাখে : বর্ষাকালে কোমল ও মসৃণ করতে ব্যবহার করতে পারেন নারকেলের দুধ। দু’চামচ নারকেলের দুধের সঙ্গে এক চামচ দই মিশিয়ে মিশ্রণটি সারা মুখে লাগিয়ে মালিশ করে নিন। কিছু ক্ষণ পর তুলো দিয়ে ফেসপ্যাক তুলে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দু'বার এটি ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বকের হারানো আর্দ্রতা ফিরে আসবে।

ত্বক কোমল ও মসৃণ করে : গ্রীষ্মে ত্বক অনেব বেশি রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে পড়ে। এক চামচ নারকেলের দুধ, মিহি করে গুঁড়ো করা ওট্‌স মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে দশ মিনিট অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে তিনবার এই মিশ্রণটি লাগালে ত্বকের উপরে জমে থাকা মৃত কোষের স্তর উঠে যাবে। এতে ত্বকের ভিতরে প্রদাহের মাত্রাও কমবে।

ব্রণ কমায়
: ত্বক খুব ব্রণ প্রবণ হলে ত্বকের যত্নে ব্যবহার করতে পারেন নারকেলের দুধ। দু’চামচ হলুদ গুঁড়া ও নারকেলের দুধ মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। ব্রণ, ত্বকের কালো দাগছোপ দূর করতে সপ্তাহে ২-৩ দিন এই মিশ্রণটি ব্যবহার করুন। এতে সুফল পাবেন।