যে কোনও বয়সেই কিডনিতে পাথরের সমস্যা হতে পারে। অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, অনিয়মিত খাওয়াদাওয়া, পানি কম খাওয়ার অভ্যাসের মতো বহু কারণে কিডনিতে পাথর জমে। সাধারণত কিডনির অসুখ ধরা পড়ে অনেক দেরিতে। অনেক ক্ষেত্রেই একটি কিডনি বিকল হয়ে গেলেও অন্যটি দিয়ে কাজ চলতে থাকে। ফলে ক্ষতি সম্পর্কে আগে থেকে আঁচ পাওয়া যায় না। এ কারণে কিডনি ভাল রাখতে খাওয়াদাওয়ার বিষয়ে বিশেষ সচেতন থাকা জরুরি। কিডনি ভাল রাখতে যেসব খাবার এড়িয়ে চলবেন-

১. এই তালিকায় প্রথমেই বাদ দিতে হবে মুলা শাক। এতে প্রচুর পরিমাণে অক্সালেট রয়েছে। এটি কিডনিতে পাথর তৈরি করে। এ কারণে মুলার শাক বেশি না খাওয়াই ভাল।

২. ঠান্ডা-পানীয়, প্যাকেট-বন্দি ফলের রস, অতিরিক্ত চিনি দেওয়া পানীয় এড়িয়ে চলা প্রয়োজন। এগুলিও কিডনিতে পাথর তৈরি করে।

৩. পরিবারের কারও কিডনিতে পাথরের সমস্যা হয়ে থাকলে আরও বেশি সাবধান হওয়া প্রয়োজন। সে ক্ষেত্রে প্রথমেই কমাতে হবে লবণ খাওয়ার পরিমাণ। বিশেষ করে কাঁচা লবণ একেবারেই এড়িয়ে চলুন।

৪. প্রয়োজনের অতিরিক্ত কফি বা চা খাওয়াও ভাল নয়। দিনে এক থেকে দু’কাপ পর্যন্ত ঠিক আছে। দীর্ঘ দিন এর চেয়ে বেশি চা খেলে পাথর জমার আশঙ্কা বাড়ে।

৫. অত্যধিক পরিমাণে ভাজাভুজি খাওয়ার অভ্যাস কিডনিতে পাথর জমার অন্যতম কারণ হতে পারে। এ কারণে যথাসম্ভব এই ধরনের খাবার থেকে দূরে থাকাই ভাল।