স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডের সুপরিচিত ব্র্যান্ড রাঁধুনী'র নিয়মিত উদ্যোগ 'সেরা রাঁধুনী' আসছে নতুন আসর নিয়ে। 'রান্নার জগতে হয়ে উঠুন উজ্জ্বল তারকা' এই স্লোগানকে শুরু হয়ে গেছে এর ৭ম আসর 'সেরা রাঁধুনী ১৪২৯'-এর রেজিস্ট্রেশন।

বাংলাদেশের আনাচেকানাচে ছড়িয়ে থাকা নানারকম রান্নায় পারদর্শী রাঁধুনীদের খুঁজে বের করার প্রতিযোগিতা সেরা রাঁধুনী ১৪২৯ প্রচারিত হবে মাছরাঙা টেলিভিশনে। সেরা রাঁধুনী'র গত কয়েকটি আসরের ভিন্ন ও সফল আয়োজনের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এবারের আয়োজনেও থাকছে নতুনত্ব এবং উপভোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস। থাকছে যথারীতি অভিনব সব পর্ব, রান্নার জমজমাট লড়াই, কঠিন বিচারকাজ, সাথে মনোরম দৃশ্যায়ন।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে ঢাকার প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এবারের সেরা রাঁধুনী'র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা পারভেজ সাইফুল ইসলাম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডের বিপণন বিভাগের প্রধান ইমতিয়াজ ফিরোজ, মিডিয়াকম লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং মাছরাঙা টেলিভিশনের নির্বাহী পরিচালক অজয় কুমার কুন্ডু, প্রতিযোগিতার তিন বিজ্ঞ বিচারক আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতিমান শেফ শুভব্রত মৈত্র, রন্ধন বিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা রীতা, অভিনয়শিল্পী ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব দিলারা হানিফ পূর্ণিমা প্রমুখ।

এসময় পারভেজ সাইফুল ইসলাম তার বক্তব্যে এবারের আসর থেকে রান্নায় পারদর্শী নতুন গুণী শিল্পীদের প্রাপ্তির সম্ভাবনায় আগাম উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। এছাড়া তিনি এবারের প্রতিযোগিতা ও অনুষ্ঠান পরিকল্পনায় বরাবরের মতোই চমক থাকার আভাস দেন।

স্বাগত বক্তব্য দেন ইমতিয়াজ ফিরোজ। তিনি দেশীয় রান্নার ঐতিহ্য সংরক্ষণ এবং সেটিকে ছড়িয়ে দিতে রাঁধুনী'র প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিন বিচারক তাদের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মাধ্যমে জানান, এবারের সেরা রাঁধুনী নির্বাচনের জন্য কোন কোন বিষয় তারা বিবেচনা করছেন।

সেরা রাঁধুনী ১৪২৯ প্রতিযোগিতার রেজিস্ট্রেশন ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ শুরু হয়ে ২০ অক্টোবর ২০২২ পর্যন্ত চলবে। ১৮ বছরের বেশি বয়সী যেকোনো বাংলাদেশি নারী-পুরুষ এতে অংশ নিতে পারবেন। এবারের 'সেরা রাঁধুনী' প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে হলে প্রতিযোগীকে নিজস্ব রেসিপি (ওয়ার্ড ফাইল বা স্পষ্টাক্ষরে হাতে লেখা রেসিপির ছবি), তৈরিকৃত খাবারের ছবি, এবং প্রতিযোগীর ছবি ও অন্যান্য তথ্য দিয়ে সেরা রাঁধুনী'র নিজস্ব ওয়েবসাইট www.sheraradhuni.com -এ সাবমিট করে কিংবা সরাসরি ডাকযোগে বা কুরিয়ারে এসএফবিএল টাওয়ার, রোড-২৭, ১১/সি, বনানী, ঢাকা ১২১৩-এই ঠিকানায় পাঠিয়ে সেরা রাঁধুনী ১৪২৯-এ রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে রেসিপি পাঠানোর জন্য সেরা রাঁধুনী র নিজস্ব ওয়েবসাইট www.sheraradhuni.com-এর সাথেও পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, 'সেরা রাঁধুনী' বাছাইয়ের জন্য পুরো বাংলাদেশকে ৮টি আলাদা অঞ্চলে ভাগ করে অনুষ্ঠিত হবে অডিশন রাউন্ড। এরপর আরেকটি প্রতিযোগিতার পর স্টুডিও রাউন্ডের জন্য নির্বাচিত প্রতিযোগীদের বেছে নেয়া হবে। স্টুডিও রাউন্ডে প্রতিযোগিতার নানা ধাপে প্রতিযোগীদের ভিন্ন ভিন্ন ঘরানার রান্নায় পারদর্শিতা যাচাইয়ের পাশাপাশি রান্না পরিবেশনা, নিজেকে উপস্থাপন, বাচনভঙ্গি, ব্যক্তিত্ব, বিক্রয় দক্ষতা, নেতৃত্বগুণ, খাবারের ব্যবসা চালানোর ক্ষমতা, বিভিন্ন পরিস্থিতি সামলানোর ক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক বুদ্ধি ও দক্ষতা প্রয়োগের ক্ষমতার উপর ভিত্তি করে নির্বাচিত হবেন সেরা রাঁধুনী ১৪২৯। পুরস্কার হিসেবে তিনি জিতে নেবেন ১৫ লাখ টাকা। প্রথম ও দ্বিতীয় রানারআপ পাবেন যথাক্রমে ১০ লাখ এবং ৫ লাখ টাকা।

রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত তথ্যের প্রয়োজনে রয়েছে একটি বিশেষ হটলাইন নম্বর ০৯৬১২১১১৩৩৩।  রোব থেকে বৃহস্পতিবার প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত এই নম্বরে ফোন করা যাবে। রেজিস্ট্রেশনের বিস্তারিত তথ্য জানতে ভিজিট করুন সেরা রাঁধুনী'র ফেসবুক পেইজ: www.facebook.com/Shera Radhuni এই ঠিকানা।

সেরা রাঁধুনী ১৪২৯-এর পুরো আয়োজনটির সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও তত্ত্বাবধানে থাকছে মিডিয়াকম লিমিটেড এবং সম্প্রচারের দায়িত্বে রয়েছে মাছরাঙা টেলিভিশন। হসপিটালিটি পার্টনার রাঙামাটি ওয়াটারফ্রন্ট রিসোর্ট।

অংশগ্রহণের নিয়মাবলি: অংশগ্রহণের জন্য নিজস্ব রান্নার রেসিপি, খাবারের ছবি, নিজের ছবি এবং প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করতে হবে।

প্রয়োজনীয় তথ্য: নাম, বয়স, ঠিকানা, পেশা, মোবাইল নম্বর, ইমেইল, জাতীয় পরিচয়পত্র/জন্ম নিবন্ধনপত্র/পাসপোর্ট নম্বর, এর আগে কখনো সেরা রাঁধুনীতে অংশগ্রহণ করেছেন কি না, করলে সাল এবং অর্জিত অবস্থান দিতে হবে। অংশগ্রহণকারীকে অবশ্যই বাংলাদেশি হতে হবে। অংশগ্রহণকারীর বয়স ২০ অক্টোবর ২০২২ তারিখে ন্যূনতম ১৮ বছর হওয়া বাধ্যতামূলক।