রংপুরে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় থাকা ৩ জন নিহত হয়েছেন। বুধবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার ইকরচালী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, ইকরচালীর ভুট্টু মিয়ার মেয়ে সুরাইয়া আক্তার (১২), মজিবর মিয়ার ছেলে অটো চালক জাহাঙ্গীর আলম, অটোযাত্রী মাসুদ রানার স্ত্রী স্মৃতি আক্তার (২৩)।

তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানা সূত্রে জানা যায়, ইকরচালী থেকে যাত্রী নিয়ে একটি ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা উপজেলা পরিষদের দিকে যাচ্ছিল। অটোরিকশাটি বরাতি ব্রিজের কাছে আসলে পেছন থেকে শ্যামলী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশাটি রাস্তায় ছিটকে পড়লে ঘটনাস্থলেই সুরাইয়া আক্তার নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অটোচালক জাহাঙ্গীর আলম ও অটোযাত্রী স্মৃতি আক্তারের মৃত্যু হয়। 

এ ঘটনায় আহতরা হলেন, মামুন মিয়া (২৫), রবিউল (২৫), জিন্নাত (৫), খাদিজা খাতুন (৩০), অজ্ঞাত শিশু (১), অজ্ঞাত নারীক (২৫)। প্রথমে পুলিশ ও স্থানীয়দের সহযোগীতায় তাদের উদ্ধার করে তারাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি মাহমুদ মোরশেদ বলেন, বাসের ধাক্কায় অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে গিয়েছে। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছি। ঘাতক বাসটিকে জব্দ করা গেলেও চালক ও তার সহযোগী পালিয়ে গেছে। কি কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে তা আমরা খতিয়ে দেখছি।