সূর্য ডুবতেই শিরশিরে হাওয়া আর হিম পড়তে শুরু করেছে প্রকৃতিতে। আবহাওয়া বদলের এই সময়ে ঘরে ঘরে এখন সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা দেখা দিচ্ছে। শিশু থেকে প্রবীণ সকলেই ভুগছেন ঠান্ডা লাগার সমস্যায়। গরম পানীয় খেলে ক্ষণিকের স্বস্তি মিললেও আবারও দেখা দিচ্ছে সমস্যা।

সর্দি, কাশি হলে বা গলা পরিষ্কার রাখতে যষ্টিমধু অসাধারণ কার্যকর। এজন্য এই সময় নিয়মিত যষ্টিমধু খেতে পারেন। যষ্টিমধু এটা আসলে গাছের শেকড়। যা আয়ুর্বেদীয় ওষুধ তৈরির অন্যতম উপাদান হিসেবে বহু বছর ধরে ব্যবহার হচ্ছে।

যেভাবে খাবেন যষ্টিমধু-

যষ্টিমধুর পানি
: গলা ব্যথা, কাশি ও সর্দি প্রতিরোধ করার গুণ রয়েছে যষ্টিমধুতে। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এই ভেষজ। তাই, শীতকালে ঠান্ডা লাগা বা গলা ব্যথা থেকে বাঁচতে প্রতিদিন এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে এক টেবিল চামচ যষ্টিমধু গুঁড়া মিশিয়ে পান করুন।

যষ্টিমধুর চা : এক কাপ পানিতে যষ্টিমধুর একটি ছোট টুকরা দিয়ে ফোটান কিছুক্ষণ। এতে আদা গ্রেট করে দিন এবং আরও কয়েক মিনিট ফোটান। এবার কাপে এই মিশ্রণটি ছেঁকে নিন, এতে টি ব্যাগ দিয়ে পান করুন।

যষ্টিমধু চেবান
: শুধু যষ্টিমধুও চিবিয়ে খেতে পারেন। যষ্টিমধুর এক টুকরো চিবিয়ে খেলে কাশি, সর্দি, গলা ব্যথা থেকে তাৎক্ষণিক পরিত্রাণ পাওয়া যাবে, গলাও পরিষ্কার হবে।

যষ্টিমধুর মিশ্রণ : যষ্টিমধুর গুঁড়ো, এক চিমটি দারুচিনির গুঁড়া, গোলমরিচের গুঁড়া এবং কয়েকটি তুলসি পাতা পানিতে দিয়ে পাঁচ মিনিট ফুটিয়ে নিন। এতে এক চামচ মধুও মেশান। দিনে দু'বার পান করুন এটি। উপকার পাবেন।