প্রচণ্ড রোদে বাইরে বের হলে অবশ্যই সানস্ক্রিন লাগানো উচিত। ত্বকের কোনো লিঙ্গ থাকে না। তাই নারী-পুরুষ সবারই সূর্যের রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত।

অনেকের ধারণা মেঘলা দিনে কিংবা শীতে সানক্রিন ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। কিন্তু এটা মোটেও ঠিক নয়। গরমের সময়ের মতো শীতকালেও সানস্ক্রিন ব্যবহার করা প্রয়োজন। এই সময় সানস্ক্রিন ব্যবহারের উপকারিতা-

সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে
: কুয়াশাচ্ছন্ন দিনেও পৃথিবী সূর্যের রশ্মির প্রায় ৮০ শতাংশ গ্রহণ করতে পারে। সানস্ক্রিনে থাকা এসপিএফ ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে।

স্কিন টোনকে সমান করে
:সানস্ক্রিনের ব্যবহার ত্বককে ইউভি এক্সপোজার থেকে রক্ষা করে ত্বকের বিবর্ণতা এবং কালো দাগ রোধ করে। পাশাপাশি ত্বকের মসৃণতা বাড়ায়। এমনকি স্কিন টোন বজায় রাখতেও সাহায্য করে।

ট্যানিং এড়িয়ে যান  :যদিও সানস্ক্রিন সম্পূর্ণরূপে ট্যানিং বন্ধ করে না, এর ব্যবহার ত্বকের ক্ষতি না করে বাইরে বেশি সময় কাটতে সাহায্য করে।

ত্বকের ক্যানসারের সম্ভাবনা কমায় : তিনটি ভিন্ন ধরনের ত্বকের ক্যান্সার সূর্যের রশ্মির সংস্পর্শে আসার জন্য হয়।  তাই বাড়ির ভিতরে থাকুন বা বাইরে, এসবের ঝুঁকি কমাতে ঘন ঘন একটি এসপিএফ ব্যবহার করুন।

বার্ধক্যের হাত থেকে রক্ষা করে
:সূর্যের আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি সময়ের আগেই চেহারায় বার্ধক্যের চিহ্ন ছেড়ে যায়।  নিয়মিত সানস্ক্রিনের ব্যবহার ত্বককে তরুণ দেখাবে।  রোদে পোড়া, ত্বকের কালো দাগ, বলিরেখা এবং এমনকি ক্যান্সার থেকে শুরু করে সবকিছু থেকে রক্ষা পেতে সানস্ক্রিনের ব্যবহার অতুলনীয়।