বিশেষ দিন ও উৎসবগুলোকে সব সময়ই পোশাকের মাধ্যমে তুলে ধরে বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করতে কে-কদ্ধ্যাফটের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বিজয়ের আবেগ ছড়িয়ে দিতে প্রতি বিজয়েই কে-কদ্ধ্যাফটের থাকে বিশেষ আয়োজন, যা লাল-সবুজে উজ্জীবিত। এবারও রয়েছে সেই লাল-সবুজের সম্ভার, সঙ্গে অন্যান্য রং এবং শিল্পের ছোঁয়া। বিজয়ের ভাবনায় লাল-সবুজের পোশাক ছাড়াও নানা রকম স্যুভেনির ও উপহার সামগ্রী নিয়ে কে-কদ্ধ্যাফটের এবারের বিশেষ সংগ্রহ। সময়, আবহাওয়া ও পরিবেশের কথা মাথায় রেখে এই দিনে মেয়েদের প্রধান সঙ্গী হতে পারে লাল-সবুজের শাড়ি। এ ছাড়াও বেছে নিতে পারেন আরামদায়ক সালোয়ার-কামিজ, কুর্তি কিংবা বিভিন্ন প্যাটার্নের টপস।

শীতে উষ্ণতার প্রয়োজনে অন্য কোনো রঙের পোশাকে জড়িয়ে নিতে পারেন লাল-সবুজের শাল। প্রতি বছরের মতো ছেলেদের পোশাকের ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম হয়নি। থাকছে পাঞ্জাবি, শার্ট, টি-শার্ট, কটি ও শাল। বিজয়ের ফ্যাশনে লাল অথবা সবুজ রঙের পাঞ্জাবির সঙ্গে মিলিয়ে পরতে কটি বেছে নিতে পারেন চমৎকার সব সংগ্রহ থেকে। শিশুদের জন্য রয়েছে নানা পোশাকের সমৃদ্ধ আয়োজন। বরাবরের মতোই থাকছে মা-বাবার সঙ্গে সন্তানদের ম্যাচিং পোশাক। এ ছাড়া যুগল ও পরিবারের সব সদস্যের মিলিয়ে পরার জন্য উপযোগী পোশাক। কে-কদ্ধ্যাফট এবারের বিজয়-২২ আয়োজন সাজিয়েছে প্রধানত জামদানি, কাঁথা, মান্ডালা, জিওমেট্রিক, ট্র্যাডিশনালসহ নানা মোটিফের অনুপ্রেরণায়।

এ ছাড়া থাকছে দেশের মানচিত্র নিয়ে করা বিভিন্ন পোশাক। ডিজাইনড কটন, সিল্ক্ক, লিনেন, অরগাঞ্জা ও তাঁতের মতো আরামদায়ক কাপড়ে তৈরি পোশাকগুলোতে নকশা ফুটিয়ে তুলতে ব্লকপ্রিন্ট, স্ট্ক্রিনপ্রিন্ট, হাতের কাজ ও এমব্রয়ডারি করা হয়েছে। রং হিসেবে ব্যবহূত হয়েছে গ্রিন, ফরেস্ট গ্রিন, পেইল গ্রিন ও রেড। তবে অন্যান্য রঙের সমন্বয়ও থাকছে। কে-ক্র্যাফটের ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, কুমিল্লা, খুলনাসহ সব আউটলেট ছাড়াও অনলাইন শপ kaykraft.com
থেকে বিজয়ের পোশাক কিনতে পারেন বিশেষ সাশ্রয়ী মূল্যে। এ ছাড়া ফেসবুক পেজ থেকেও কেনাকাটা করার সুবিধা আছে। 

বিষয় : ফ্যাশন হাউজ শীত আয়োজন

মন্তব্য করুন