বাবা নিয়ে আলোচিত কিছু গান

প্রকাশ: ১৬ জুন ২০১৯     আপডেট: ১৬ জুন ২০১৯      

বিনোদন ডেস্ক

বাবাকে নিয়ে জনপ্রিয় গানের গায়ক এন্ডু কিশোর, আইয়ুব বাচ্চু, আগুন ও আসিফ

বটবৃক্ষ তিনি, সন্তানের জন্য তিনি শীতল ছায়া। তিনি বাবা। বাবার কোন কোন তুলনা হয়না। যার তুলনা তিনি নিজেই। বাবা শাশ্বত, চির আপন, চিরন্তন। বাবা মানে নির্ভরতার আকাশ আর নিঃসীম নিরাপত্তার চাদর। ‘মরিয়া বাবর অমর হয়েছে, নাহি তার কোন ক্ষয়/ পিতৃস্নেহের কাছে হয়েছে মরণের পরাজয়’— সন্তানের প্রতি বাবার ভালোবাসা এতোটাই স্বার্থহীন যে, সন্তানের জন্য নিজের প্রাণ দিতেও তাঁরা কুণ্ঠাবোধ করেন না। আজ রবিবার  বিশ্ব বাবা দিবস। বছরের এই একটি দিনকে প্রিয় সন্তানরা বাবাদের জন্য আলাদা করে বেছে নিয়েছেন। জুন মাসের তৃতীয় রবিবার সারা বিশ্বের সন্তানরা পালন করছেন বাবা দিবস। বাবাকে নিয়ে প্রয়াত জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ বলে গেছেন, ‘পৃথিবীতে অনেক খারাপ মানুষ আছে, কিন্তু একটিও খারাপ বাবা নেই’ ।

এই বাবাদের নিয়ে বাংলাভাষায় রয়েছে কালজয়ী কিছু গান। বাবা দিবস উপলক্ষে আলোচিত এমন কিছু গান নিয়েই এ আয়োজন 

আয় খুকু আয়

আয় খুকু আয় (হেমন্ত মুখোপাধ্যায় ও শ্রাবন্তী মজুমদার) : বাবা নিয়ে পুরনো কিন্তু অসম্ভব জনপ্রিয় একটি গান ‘আয় খুকু আয়’। পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা এবং ভি বালোসারার সুরে গানটি গেয়েছিলেন হেমন্ত মুখোপাধ্যায় ও শ্রাবন্তী মজুমদার। এটিকে সবাই ভারতীয় বাংলা গান হিসেবেই সমাদর করে। বাংলাদেশে গানটির জনপ্রিয়তার শুরু ১৯৭৯ সালে কাজী হায়াতের ‘দ্য ফাদার’ চলচ্চিত্রে ব্যবহারের পর থেকেই। ‘আয় খুকু আয়’ গানটি এখনও শ্রোতাদের মনকে অস্থির করে তোলে। নতুন করে গানটির আয়োজনে কণ্ঠ দিয়েছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় দুই কণ্ঠ তারকা আসিফ আকবর ও ন্যান্সি।

বাবা

বাংলাদেশি গানে বাবাকে নিয়ে যত গান প্রকাশ হয়েছে তার মধ্যে নগরবাউল জেমসের গাওয়া ‘বাবা’ গানটি অন্যতম ও জনপ্রিয় গান। গানটির কথাও সুর করেছেন প্রিন্স মাহমুদ। এটি ‘হারজিৎ’ অ্যালবামে প্রকাশিত হয়।

আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন

আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের লেখা ও সুরে এন্ড্রু কিশোরের গাওয়া ‘আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন’ শিরোনামের গানটি অনেক বেশি জনপ্রিয়। এন্ডু কিশোরের কণ্ঠে ‘নয়নের আলো’ সিনেমায় এ গানটিতে ঠোঁট মিলান প্রয়াত চিত্রনায়ক জাফর ইকবাল। গানটি এখনও বাবা নিয়ে সবচেয়ে জনপ্রিয় গান।

বাবা তোমার কথা মনে পড়ে

আইয়ুব বাচ্চুর গাওয়া এ গানটি খুবই জনপ্রিয়। গানটির কথা ও সুর করেছেন তিনি নিজেই। এটি ‘প্রেম তুমি কি’ অ্যালবামে প্রকাশিত হয়।

বাবা বলে ছেলে নাম করবে

১৯৯২ সালে মুক্তি পাওয়া সালমান শাহ অভিনীতি ছবি ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ সিনেমার গান এটি। মনিরুজ্জামান মনিরের লেখা গানটি গেয়েছেন শিল্পী আগুন। সঙ্গীতায়োজন করেন আনন্দ শ্রীবাস্তব ও মিলিন্দ শ্রীবাস্তব। এটি আগুনের ক্যারিয়ারে প্রথম মুক্তি পাওয়া ছবির গান। এখনও গানটি শ্রোতাদের মুখে মুখে রয়েছে।

বাবা নেই

২০০৬ সালের কথা। আসিফ আকবরের বাবা মারা যান। তার কিছু দিন পরই ‘পাপী’ অ্যালবামটি প্রকাশ হয়। এ অ্যালবামেই ‘বাবা নেই’ গানটি প্রকাশ হয়। মূলত সুরকার রাজেশের আগ্রহে এ গানটি তৈরি হয়। গানটি লিখেছেন প্রদীপ সাহা। গানটি এখনও শ্রোতা মহলে খুব জনপ্রিয় এবং মুখে মুখে মুখরিত।

বাবা বলে গেল

‘বাবা বলে গেল আর কোনোদিন গান করো না’ আমজাদ হোসেনের কথা ও আলাউদ্দিন আলীর সুরে ১৯৮১ সালে গানটির রেকর্ডিং হয়। গানটির কথা সবাই জানলেও শিল্পী শামীমা ইয়াসমিন দিবার কথা অনেকেই জানেন না। আমজাদ হোসেন পরিচালিত ‘জন্ম থেকে জ্বলছি’ চলচ্চিত্রে এ গানটি ব্যবহৃত হয়। এ গানটিও বেশ সমাদৃত, ব্যাপক জনপ্রিয় এবং মানুষের মুখে মুখে এখনও মুখরিত হয়।

আমার বাবার কথা বড় মনে পড়ে

স্বনামধন্য গীতিকবি গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা সৈয়দ আবদুল হাদি তার বাবার গল্প নিয়ে গানটি গেয়েছিলেন। সৈয়দ আবদুল হাদি চেয়েছিলেন বাবাকে নিয়ে একটি বাস্তববাদী গান করতে, সেটাই গানটিতে তুলে ধরা হয়েছে। বাবার সেই ছোট্টবেলার স্মৃতি থেকে শুরু করে তিনি নিজেই এখন বাবা, এ গল্পের ওপর গানটি সাজানো হয়েছে।

বাবা তোমার ছেলে আজ বড় হয়েছে

মিল্টন খন্দকারের লেখা স্মরণীয় একটি গান। এ গানে গায়কের গায়ক হওয়ার স্বপ্ন, সাধনার কথা তুলে ধরেছেন তিনি। অশ্র“ভেজা চোখে এ গানটিতে সবটুকু দরদ দিয়ে কণ্ঠ দিয়েছেন গায়ক মনির খান। এ গান যেন তার জীবনের গল্প। গানটি মনির খানের গাওয়া অন্যতম শ্রেষ্ঠ গান। গানটি দর্শক মহলে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। এখনও মানুষের মুখে মুখে মুখরিত হয় গানটি।

পাশাপাশি বাবাকে নিয়ে গাওয়া ফাহমিদা নবীর ‘আছো তুমি কোন সুদূরে’, বন্নি আহমাদের ‘বাবা বলতো বড় হয়ে নে খোকা’, ঝিনুকের ‘বাবা খেয়াল রেখো তুমি তোমার মতো’, ফাবিহার ‘আমি যাচ্ছি বাবা’, তারিনের ‘আমার দেখা প্রথম নায়ক আমার কাছে সেরা, বাবা তোমার হৃদয়টা যে আদর স্নেহে ঘেরা’, ডিফারেন্ট টাচ ব্যান্ডের মিসবাহর কণ্ঠে ‘বাবা বলত’ প্রতীক হাসানের ‘এখনো মনে পড়ে বাবাকে’ গানগুলোও যে কোনো সন্তানের মনে বাবার জন্য অপার্থিব প্রেমের আবেদন সৃষ্টি করবে।