রোবট দ্বারা পরিচালিত ছোটবড় অনেক কাজের খবর ইতোমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে। এবার আইসক্রিম বিক্রি করে তাক লাগিয়ে দিল রোবট। সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে রোবটকে দেখা গেছে আইসক্রিম বিক্রেতার ভূমিকায়।

দুবাইয়ের শপিংমল, ফেস্টিভ্যালসহ আরব আমিরাতের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানেও দেখা যাচ্ছে বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করা রোবট। স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরিচালিত ব্যতিক্রমী এই রোবট ইতোমধ্যেই দর্শনার্থী থেকে শুরু করে সবার নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছে। এমনকি দুবাই আসা পর্যটকদের পছন্দের তালিকায়ও জায়গা করে নিয়েছে ‘আইসক্রিম বিক্রেতা’ এই রোবট।

দুবাইয়ে চলমান গ্লোবাল ভিলেজ শপিং ফেস্টিভ্যালেও ‘আইসক্রিম বিক্রি করা রোবটকে ঘিরে ছিল উৎসুক পর্যটকদের ভিড়। ঘুরতে আসা শিশু-কিশোরদের বাড়তি আকর্ষণের জায়গাও ছিল এটি।

ইতোমধ্যেই দর্শনার্থী থেকে শুরু করে সবার নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছে ব্যতিক্রমী এই রোবট। ছবি- সমকাল 

মেলায় ঘুরে দেখা গেছে, রোবটটি বিভিন্ন যন্ত্রাংশ ও সংবেদনশীল সরঞ্জাম ব্যবহার করে গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ করছে। এমনকি মানুষের মতোই কথা বলতে সক্ষম এটি।

চলতি পথে হেঁটে যাওয়া দর্শনার্থীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নিজের কাছে থাকা বিভিন্ন আইসক্রিমের নাম বলতে থাকে মেশিনের সাহায্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ করা রোবটটি। এরপর আগ্রহী গ্রাহকরা মনিটরের সাহায্যে পছন্দ মত আইসক্রিম অর্ডার করতে পারেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই অর্ডারকৃত আইসক্রিম তৈরি করে গ্রহকের হাতে তুলে দেয় রোবট। এই রোবট থেকে আইসক্রিম কিনতে গেলে নগদ বা ব্যাংক কার্ডের সাহায্যে বিল পরিশোধ করার সুবিধা রয়েছে।

জানা গেছে, বিশ্বের প্রথম ম্যানিকুইন রোবট হিসেবে দুবাইয়ে আইসক্রিম পরিবেশন করে আসছে এসব রোবট। এই রোবটের পরিবেশক ‘আইসলিস’ নামে একটি আইসক্রিম জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান।