গোসল করা নিয়ে অনেকেরই অনীহা আছে। বিশেষ করে শীতকালে এই অনীহা আরও বেড়ে যায়। সেক্ষেত্রে হয়তো কেউ কেউ কয়েকদিন পর্যন্ত গোসল না করে থাকেন। কিন্তু তাই বলে ২২ বছর! শুনতে অবিশ্বাস্য হলেও ভারতে এমন এক ব্যক্তি আছেন যিনি টানা ২২ বছর গোসল করেননি।

৬২ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির নাম ধর্মদেব রাম। তার বাড়ি বিহারের গোপালগঞ্জ জেলার বৈকুণ্ঠপুর গ্রামে।

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অনীহা থেকে নয়, বরং নারীদের উপর অত্যাচার, নিরীহ পশু হত্যা এবং জমি নিয়ে বিবাদ যতদিন বন্ধ না হবে তত দিন গোসল না করার প্রতিজ্ঞা করেন ধর্মদেব। তার স্ত্রী এবং ছেলের মৃত্যুর সময়েও নিজের কঠোর প্রতিজ্ঞা থেকে সরেননি তিনি। প্রবল গরমে ঘেমে অস্থির হলেও গোসল করতে দেখা যায়নি তাকে।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, ১৯৭৫ সাল থেকে পশ্চিমবঙ্গের জগদ্দলে একটি কারখানায় কাজ করতেন ধর্মদেব। ১৯৭৮ সালে  বিয়েও করেন তিনি। ১৯৮৭ সালে হঠাৎ করেই একদিন তিনি উপলব্ধি করেন, জমি সংক্রান্ত বিবাদ, নারীদের উপর হিংসার ঘটনা এবং নিরীহ পশুদের হত্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। এর পর তিনি এর উত্তর খুঁজতে এক গুরুর কাছে যান। সেই গুরু ধর্মদেব রামকে তার শিষ্য করে নেন। সেই গুরুই তাকে ত্যাগের পথে চলার পরামর্শ দেন। তখন থেকেই রামচন্দ্রের ধ্যান করেন ধর্মদেব রাম। গোসলও বন্ধ করে দেন। একসময় খাওয়াদাওয়াও বন্ধ করে দিয়েছিলেন তিনি। কারখানার মালিক এ ব্যাপারে জানতে পেরে ধর্মদেবকে চাকরি থেকে তাড়িয়ে দেন। তারপর তিনি নিজ গ্রামে ফেরেন। এর পর খাওয়া শুরু করলেও এক দিনের জন্যও গোসল করেননি ধর্মদেব।