বিয়ে সবার জীবনের একটি বিশেষ দিন।  দিন ঠিক হওয়ার পর থেকেই বিয়ে নিয়ে বর-কনের পরিকল্পনা শুরু হয়ে যায়। নিজেদের জীবনের এই দিনটি স্মরণীয় করে রাখতে সবারই চেষ্টা থাকে। বিশেষ করে কনেরা পোশাক থেকে শুরু করে সাজসজ্জা সবকিছুই স্মরণীয় করে রাখতে চান। কারও কারও চেষ্টা থাকে ব্যতিক্রমী কিছু করারও। কিন্তু তাই বলে বিয়ের আসরে নিজের চুল কেটে ক্যান্সার রোগীদের দান করার ঘটনা কমই আছে। শুনতে অবিশ্বাস্য লাগলেও সামাজিক মাধ্যমে এমনই একটি খবর ভাইরাল হয়েছে। যা দেখে পরিবারের সদস্য থেকে শুরু করে উপস্থিত অতিথিরা হতবাক হয়ে গিয়েছেন।

ভিডিওটি মিশিগান ওয়েডিং ফটোগ্রাফার এবং ভিডিওগ্রাফার ব্রায়ানা এসলিংগার ইনস্টাগ্রামে যৌথভাবে শেয়ার করেছেন। ভিডিওতে বিয়ের সাদা পোশাকে সজ্জিত এক তরুণীকে লম্বা বেণি করা চুলে দেখা গেছে । হঠাৎ করেই ওই তরুণী পার্টি থেকে বেরিয়ে আসেন। সবাই তার তার সাথে একটি ঘরে যান। সেখানেই তার বেণি খুলে লম্বা চুল কাটতে দেখা যায় ভিডিওতে।

কনে জানান, নিজের লম্বা চুল ক্যান্সার রোগীদের দান করতে চান তিনি।  তিনি আরও জানান, মরণ রোগের কারণে যে সকল মানুষের চুল হারাতে হয় তাদেরই বিয়ের মতো বিশেষ দিনে নিজের চুল দান করতে চেয়েছিলেন তিনি। কথা বলার সময় কনের চোখ দিয়ে অশ্রু ঝরতেও দেখা যায় ভিডিওতে।

 সদ্য বিবাহিতার বড় চুল কেটে ফেলতে দেখে চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি পরিবারের লোকজন।

কনে বলেন, 'আমি কখনই এটা ভুলব না....আমার মাকে ক্যান্সারে হারানোর পর আমি বুঝতে পারি একজন নারীর চুল না থাকাটা কতটা চ্যালেঞ্জিং হতে পারে'।

শেয়ার করার পর থেকে ভিডিওটি ৩০ লাখেরও বেশিবার দেখা হয়েছে। অনেকেই কনের এই উদ্যোগের প্রশংসা করে সাধুবাদ জানিয়েছেন। সূত্র: এনডিটিভি