জার্মান স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়েন্স স্পান দেশটির নাগরিকদের করোনার টিকা নিতে আহ্বান জানিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সোমবার বার্লিনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, 'টিকা নিন। নইলে এবারের শীত মৌসুম শেষ হতে হতে হয় সবাই করোনায় ভুগবেন, নয়তো মরবেন।' 

জার্মানিতে প্রতিদিনই নতুন সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ছে। ইতিমধ্যে দেশটির অনেক হাসপাতাল করোনা রোগীতে পূর্ণ হয়ে গেছে। মোট জনসংখ্যার ৬৮ শতাংশ করোনার টিকার পূর্ণাঙ্গ ডোজের আওতায় এসেছেন। তবে এই হার পশ্চিম ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশ কম। খবর বিবিসির।

মহামারি শুরুর পর থেকে এখন জার্মানিতে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ৩০ হাজার ৬০০ এর বেশি। বর্তমানে একদিনে বিশ্বে করোনা রোগী শনাক্তের এটাই সর্বোচ্চ সংখ্যা।

করোনার ডেলটা ধরন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার পরিপ্রেক্ষিতে টিকা না নেওয়া ব্যক্তিদের কিছু জায়গায় চলাফেরায় বিধিনিষেধ আরোপ করেছে জার্মানি। আসন্ন বড়দিনের আগে বেশকিছু বাজার বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। 

এই বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে জার্মান স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়েন্স স্পান বলেন, ‘স্বাধীনতা মানে দায়িত্ববান হওয়া। করোনার টিকা নেওয়ার মাধ্যমে সমাজের প্রতি আপনার দায়িত্ব পালন করুন।’

তিনি আরও বলেন, ‘সবার জন্য করোনার টিকা বাধ্যতামূলক করার পক্ষে আমি নই। তবে নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকে সবার টিকা নেওয়া উচিত। কেননা, এর ফলে একদিকে যেমন নিজের সুরক্ষা নিশ্চিত করা যাবে। অন্যদিকে অন্য মানুষের সুরক্ষাও নিশ্চিত হবে।’

শুধু জার্মানি নয়, শীত মৌসুমের শুরুতেই পুরো ইউরোপে করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। সংক্রমণ ঠেকাতে ইতিমধ্যে লকডাউনে গেছে অস্ট্রিয়া। ইউরোপজুড়ে করোনার নতুন করে বিস্তারে উদ্বেগ জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।