দেশের আরও তিন জনের দেহে কনোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এই নিয়ে দেশে মোট ওমিক্রন সংক্রমিত সাত জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। 

ওই তিন করোনা আক্রান্ত রোগীর শরীর থেকে পাওয়া ভাইরাসের জিন বিন্যাস বিশ্লেষণ করে মঙ্গলবার রাতে জার্মানির গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা (জিআইএসএআইডি) ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে বিষয়টি জানানো হয়। 

এর আগে মঙ্গলবারও একজনের ওমিক্রন সংক্রমণের তথ্য দিয়েছিল এই ওয়েবসাইট। পুরুষ ওই রোগীর শরীর থেকে পাওয়া ভাইরাসের নমুনার জিনোম সিকোয়েন্স করেছিল আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর,বি)। আর সোমবার এক নারীর ওমিক্রনে আক্রান্তের তথ্য প্রকাশ করেছিল জিআইএসএআইডি। তারা দুজনই ঢাকার বাসিন্দা।

এদিকে মঙ্গলবার রাতে প্রকাশিত তথ্যে জানা যায়, নতুন শনাক্ত তিন ব্যক্তি রাজধানীর বনানী এলাকার বাসিন্দা। তাদের দু’জন নারী, একজন পুরুষ। নারীদের একজনের বয়স ৩০, আরেকজনের ৪৭ বছর। আর ওমিক্রন শনাক্ত পুরুষের বয়স ৮৪ বছর।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) ২৩ ডিসেম্বর ওই তিন জনের নমুনা সংগ্রহ করেছিল। পরীক্ষায় তাদের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। পরে জিনোম সিকোয়েন্সিং করে ওমিক্রনের বিষয়টি ধরা পড়ে।

এর আগে জিম্বাবুয়ে ফেরত দুই নারী ক্রিকেটারের মধ্যে প্রথম ওমিক্রনের সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা সরকারিভাবে জানানো হয়েছিল।