গ্রেপ্তারের পর হ্যান্ডকাপসহ ছিনিয়ে নেওয়া আসামির কাছে চাবি পাঠিয়ে হ্যান্ডকাপ উদ্ধার করল পুলিশ। বরিশালের হিজলা উপজেলার ধুলখোলা ইউনিয়নের আলীগঞ্জ বাজারে রোববার সকালে এ ঘটনা ঘটেছে। ধুলখোলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জামল ঢালী নেতৃত্বে আসামি ছিনতাই হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে।

১৫ জুনের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী জামাল ঢালীকে হিজলা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণবিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কার করা হযেছে। এ ইউনিয়নের পি এন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের স্থগিত ভোট ২৯ জুন অনুষ্ঠিত হবে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানিয়েছে, মামলার আসামি নিজাম উদ্দিন নিজুকে রোববার সকাল ৮টায় বাজারে আল আমিনের বেকারি থেকে আলীগঞ্জ পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক শফিক উদ্দিনের নেতৃত্বে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পরই তাকে হ্যান্ডকাপ পরানো হয়েছিল। কিছুক্ষণ পরই ২৫-৩০ জন সহযোগী নিয়ে সেখানে আসেন চেয়ারমান প্রার্থী জামাল ঢালী।

গ্রেপ্তার নিজু তার নির্বাচনী কর্মী। জামাল ঢালী পুলিশের কাছ থেকে নিজুকে ছিনিয়ে নেওয়ার পর সে হ্যান্ডকাপসহ পালিয়ে যায়। এ ঘটনার পর পুলিশ জামাল ঢালীর সঙ্গে সমঝোতা করে চাবি দিয়ে দিলে হ্যান্ডকাপ খুলে পুলিশের কাছে ফেরত পাঠানো হয়।

তবে এ তথ্য পুরোপুরি সঠিক নয় জানিয়ে হিজলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুস মিয়া বলেন, আসামি ছিনতাই হয়নি। নিজাম উদ্দিন নিজুকে গ্রেপ্তারের পর হ্যান্ডকাপ পরানোর আগেই জামাল ঢালী দলবলসহ এসে সেখানে হট্টগোল করেন। এ সুযোগে নিজু পালিয়ে গেছে।

ওসি জানান, ১৫ জুনের নির্বাচনে পি এন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ইভিএমে ত্রুটি দেখা দেওয়ায় ভোট স্থগিত করা হয়। ওইদিন সন্ধ্যার পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী জামাল ঢালীর সমর্থকরা বিক্ষোভ করে পুলিশের ওপর হামলা করে। ওই ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার ৩ নম্বর আসামমি হচ্ছে নিজাম উদ্দিন নিজু।

চেয়ারম্যান প্রার্থী জামাল উদ্দিন ঢালী আসামীমি ছিনতাইয়ের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি রোববার সকালে ভোট চাইতে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছিলেন। এ সময় দেখেন নিজু দৌড়াচ্ছে তার পেছনে দৌড়াচ্ছে পুলিশ। পরে শুনেছেন তাকে আটকের পর সে পালিয়ে গেছে।

এ বিষয়ে আলীগঞ্জ ফাড়ির ক্যাম্প ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক শফিক উদ্দিন ‘আমি ব্যস্ত আছি, এসব বিষয়ে পরে কথা বলব’ বলে সংযোগ কেটে দেন।

হিজলা সার্কেলের দায়িত্বরত সহকারী পুলিশ সুপার মতিয়ার রহমান বলেন, আসামি ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হ্যান্ডকাপসহ পালানো এবং পরে সমঝোতা করে হ্যান্ডকাপ উদ্ধারের বিষয়টি তার জানা নেই বলে দাবি করেন তিনি।