নোয়াখালী পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে অবস্থিত পশ্চিম বদরীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৯৫৫ সালে প্রতিষ্ঠিত। ২৩ বছর আগে পুরাতন ভবন পরিত্যক্ত হওয়ায় স্কুলটির খেলার মাঠে নতুন ভবন নির্মাণ করা হয়। তখন বলা হয়েছিল, পুরাতন ভবন ভেঙে খেলার উপযোগী মাঠ করা হবে। আজ পর্যন্ত সে প্রতিশ্রুতি পূরণ করা হয়নি। ফলে মাঠের অভাবে কোমলমতি শিশুরা সকালে সমাবেশের আগে এবং টিফিনের সময় খেলাধুলা করতে পারছে না। খেলার মাঠ না থাকায় শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা এখন বন্ধ, যার প্রভাব পড়ছে তাদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশে। টিফিনের সময় তাদের শ্রেণিকক্ষে বসে থাকা নিঃসন্দেহে দুঃখজনক। আগে যারা এ স্কুলে পড়াশোনা করেছে, সে সময় খেলার মাঠ ছিল। তারা স্কুল শুরুর আগে এবং ক্লাসের ফাঁকে মাঠে খেলাধুলা করতে পারত। তা ছাড়া বন্ধের দিনেও বিশেষ করে বর্ষাকালে সহপাঠীরা মিলে দীর্ঘক্ষণ বল খেলতে পারত। অনেক স্কুলে জায়গার অভাবে মাঠ থাকে না। অথচ এ বিদ্যালয়ে জায়গা থাকা সত্ত্বেও স্কুল কমিটির গাফিলতির কারণে শিশুরা খেলাধুলা করতে পারছে না।

সুস্থ, সুন্দর ও আনন্দময় জীবনের জন্য খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। এ জন্য প্রয়োজন সঠিক পরিবেশ। শিশু-কিশোর ও তরুণদের খেলাধুলাচর্চার প্রতি ভালোবাসার কোনো কমতি নেই। কিন্তু তাদের সেই সুযোগ নেই। অথচ একটা সময় ছিল, যখন স্কুল-কলেজ চত্বর ক্রীড়া কর্মকাণ্ডে মুখর থাকত।

পশ্চিম বদরীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ থেকেও এ দুরবস্থা প্রত্যাশিত নয়। সংশ্লিষ্ট সবার প্রত্যাশা, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্বার্থে প্রশাসন অনতিবিলম্বে ওই স্কুলের পরিত্যক্ত ভবনে খেলার মাঠ তৈরিতে ব্যবস্থা নেবে।

নোয়াখালী


বিষয় : মুনতাসির আজিজ

মন্তব্য করুন