সংসদ ভবন এলাকায় বেওয়ারিশ কুকুর দ্রুত অপসারণের সুপারিশ করেছে সংসদ কমিটি। একই সঙ্গে মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ এবং নাখালপাড়ার সংসদ সদস্য ভবনের সামনে সাইনবোর্ড এবং বিল বোর্ডসহ যাবতীয় ব্যানারও অপসারণের সুপারিশ করা হয়। 

মঙ্গলবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদ কমিটির ষষ্ঠ বৈঠক এই সুপারিশ করা হয়। কমিটি সভাপতি চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে আরও অংশ নেন কমিটির সদস্য এ বি তাজুল ইসলাম, ইকবালুর রহিম, ফজলে হোসেন বাদশা, নূর মোহাম্মদ, মনজুর হোসেন এবং শওকত হাচানুর রহমান (রিমন) অংশ নেন।

এছাড়া বিশেষ আমন্ত্রণে সংসদ-সদস্য ভবন ব্যবস্থাপনা কমিটির আহবায়ক মো. সাইফুজ্জামান, যুগ্ম আহবায়ক নাহিদ ইজাহার খান এবং যুগ্ম আহবায়ক নার্গিস রহমান অংশ নেন।

বৈঠকে সংসদ-সদস্য ভবনসমূহের ফ্ল্যাট বরাদ্দের বিদ্যমান শর্তাবলীর পরিবর্তন, পরিবর্ধন ও সংশোধন বিষয়ে আলোচনা করা হয় এবং সংসদ-সদস্য ভবনসমূহের ফ্ল্যাট বরাদ্দের নীতিমালা পরবর্তী বৈঠকে উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।

কমিটি মানিক মিয়া অ্যাভিনিউর ৪, ৫ ও ৬ নং সংসদ সদস্য ভবনের ফ্ল্যাটের তেলাপোকা-উইপোকা নির্মূলের ব্যবস্থা, ১নম্বর ভবনের মতো গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা ও পুরাতন মসজিদকে সংস্কারপূর্বক আধুনিকরণের জন্য সুপারিশ করে। এছাড়া মানিক মিয়া অ্যাভিনিউর সংসদ সদস্য ভবনের সামনে জমে থাকা পানি দ্রুত নিস্কাশনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সিটি কর্পোরেশন ও ওয়াসাকে বলা হয়।

বৈঠকে মানিক মিয়া অ্যাভিনিউর ও নাখালপাড়ার সংসদ সদস্য ভবন, পুরাতন সংসদ সদস্য ভবন এবং মন্ত্রী হোস্টেলের স্থায়ী কমিটির সভাপতিদের কার্যালয়কে সিসিটিভির আওতায় আনা এবং অগ্নি-নির্বাপণ যন্ত্রপাতি স্থাপনের জন্য সুপারিশ করা হয়।




মন্তব্য করুন