মুজিববর্ষে সংসদের বিশেষ অধিবেশন শুরু হচ্ছে আজ রোববার। একাদশ সংসদের এটি দশম অধিবেশন। সন্ধ্যা ৬টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হবে। আগামীকাল সোমবার রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের স্মারক বক্তৃতার মাধ্যমে শুরু হবে বিশেষ অধিবেশনের কার্যক্রম। আগের তিন অধিবেশনের মতো এবারও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে বলে সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সংসদ সচিবালয়ের তথ্যানুযায়ী, প্রথম দিনের কার্যসূচিতে সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়ন, শোক প্রস্তাব গ্রহণ, প্রশ্নোত্তর ও ৭১ বিধির জরুরি জনগুরুত্বসম্পন্ন মনোযোগ আকর্ষণের নোটিশ নিষ্পত্তি হবে। এর পর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) অধ্যাদেশ ২০২০ উপস্থাপিত হবে। এ ছাড়া এদিন তথ্য কমিশনের বার্ষিক প্রতিবেদন, স্থায়ী কমিটির রিপোর্ট উপস্থাপন ও দুটি বিল উত্থাপন করা হবে। বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড ২০২০ এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) বিল ২০২০ উত্থাপন হবে।

বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য ও কর্মময় রাজনৈতিক জীবন নিয়ে রাষ্ট্রপতির স্মারক বক্তৃতার পর তা নিয়ে আলোচনার জন্য একটি সাধারণ প্রস্তাব আনা হবে। ওই প্রস্তাবের ওপর সরকার ও বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যদের দীর্ঘ আলোচনা শেষে তা পাস হবে। জানা যায়, সাধারণ প্রস্তাবের ওপর টানা চার দিন আলোচনা শেষে বৃহস্পতিবার গ্রহণ করা হবে। বিশেষ অধিবেশনের ধারাবাহিকতায় আগামী সপ্তাহে দুই বা তিন দিন সাধারণ কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে তা শেষ হবে।

জানা যায়, বিশেষ অধিবেশন সামনে রেখে যাবতীয় প্রস্তুতি শেষ করেছে সংসদ সচিবালয়। সংসদ সদস্য, সাংবাদিকসহ সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। বিশেষ অধিবেশনের প্রথম দিন অর্থাৎ আজ কভিড-১৯ নেগেটিভ সব সংসদ সদস্যই বৈঠকে যোগ দেওয়ার সুযোগ পাবেন। এর পর থেকে আগের মতো সংসদ সদস্যরা রোস্টারভিত্তিক বৈঠকে যোগ দেবেন।

এমপি শহিদুজ্জামান দ্বিতীয় দফায় করোনা আক্রান্ত :সংসদের অধিবেশনে অংশ নিতে করোনা পরীক্ষায় আরও ৬ এমপি পজিটিভ বলে শনাক্ত হয়েছেন। গতকাল শনিবার তাদের কভিড-১৯ পরীক্ষার ফল পাওয়া যায়। তাদের মধ্যে শহিদুজ্জামান সরকার এমপি দ্বিতীয়বার আক্রান্ত হয়েছেন। এ ছাড়া একজন উপমন্ত্রী ও একজন সদ্য শপথ নেওয়া সংসদ সদস্যও রয়েছেন।

করোনা আক্রান্ত এমপিরা হলেন- সংরক্ষিত নারী আসনের নাদিরা ইয়াসমিন জলি ও তাহমিনা বেগম; নাটোর-২ (নাটোর সদর-নলডাঙ্গা) আসনের শফিকুল ইসলাম, পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনের নুরুজ্জামান বিশ্বাস, নওগাঁ-২ আসনের শহিদুজ্জামান সরকার এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার। সংসদের মেডিকেল সেন্টারের কর্মকর্তা ডা. তানিম আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দেশের প্রথম করোনা আক্রান্ত সংসদ সদস্য ছিলেন আওয়ামী লীগের শহিদুজ্জামান সরকার। গত ৩০ এপ্রিল তার করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরদিন ১ মে তাকে জানিয়ে দেওয়া হয়, তিনি করোনা পজিটিভ। ১৬ মে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এবার তিনি দ্বিতীয়বারের মতো আক্রান্ত হলেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে শহিদুজ্জামান সরকার বলেন, সত্যিই হতাশাজনক। দেশবাসীর কাছে আমি দোয়া চাই, যেন আগের মতো আবার সুস্থ হয়ে উঠি।

অন্যদিকে করোনা আক্রান্ত আওয়ামী লীগের নুরুজ্জামান বিশ্বাস ৭ অক্টোবর এমপি হিসেবে শপথ নেন। এবারই তিনি প্রথমবারের মতো সংসদে যোগ দেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমার শরীরে কোনো উপসর্গ নেই। তবুও করোনা পজিটিভ এসেছে। সংসদ থেকে এ সংক্রান্ত মেসেজ পাওয়ার পরই আইসোলেশনে আছি।

মন্তব্য করুন