রাজশাহীতে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু কোনোভাবেই কমছে না। রমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিনিয়ত হাসপাতাল প্রাঙ্গন ভারি হয়ে উঠছে স্বজনদের আহাজারিতে। অক্সিজেন ও আই,সি,ইউ সঙ্কট বেড়েই চলেছে প্রতিদিন। ছবিটি মঙ্গলবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তোলা। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা

রাজশাহীতে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু কোনোভাবেই কমছে না। রমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিনিয়ত হাসপাতাল প্রাঙ্গন ভারি হয়ে উঠছে স্বজনদের আহাজারিতে। অক্সিজেন ও আই,সি,ইউ সঙ্কট বেড়েই চলেছে প্রতিদিন। ছবিটি মঙ্গলবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তোলা। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা

রাজশাহীতে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু কোনোভাবেই কমছে না। রমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিনিয়ত হাসপাতাল প্রাঙ্গন ভারি হয়ে উঠছে স্বজনদের আহাজারিতে। অক্সিজেন ও আই,সি,ইউ সঙ্কট বেড়েই চলেছে প্রতিদিন। ছবিটি মঙ্গলবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তোলা। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা

রাজশাহীতে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু কোনোভাবেই কমছে না। রমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিনিয়ত হাসপাতাল প্রাঙ্গন ভারি হয়ে উঠছে স্বজনদের আহাজারিতে। অক্সিজেন ও আই,সি,ইউ সঙ্কট বেড়েই চলেছে প্রতিদিন। ছবিটি মঙ্গলবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তোলা। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা

রাজশাহী নগরে চলছে ১৩ তম দিন ধরে চলছে ‘কঠোর লকডাউন’। তবে দীর্ঘ সময় ধরে লকডাউন থাকায় এর বিধিনিষেধ ভেঙে বাইরে বের হচ্ছে মানুষ। ফলে রাস্তায় বেড়েছে মানুষের চলাচল ও যানবাহনের সংখ্যা। ছবিটি মঙ্গলবার সাহেব বাজার থেকে তোলা। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা

রাজশাহী নগরে চলছে ১৩ তম দিন ধরে চলছে ‘কঠোর লকডাউন’। তবে দীর্ঘ সময় ধরে লকডাউন থাকায় এর বিধিনিষেধ ভেঙে বাইরে বের হচ্ছে মানুষ। ফলে রাস্তায় বেড়েছে মানুষের চলাচল ও যানবাহনের সংখ্যা। ছবিটি মঙ্গলবার সাহেব বাজার থেকে তোলা। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা