ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ধানক্ষেত যখন ছবির ক্যানভাস

ধানক্ষেত যখন ছবির ক্যানভাস

ছবি: ডয়েচে ভেলে

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১১:১০ | আপডেট: ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১১:১৯

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম চাল রপ্তানিকারক দেশ থাইল্যান্ড চলতি বছর তাদের ধানের উৎপাদন আরও বাড়াচ্ছে। মোট ৮৫ লাখ মেট্রিক টন ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছে তারা। এরই মধ্যে দেশটির একজন কৃষক ধানক্ষেতে এমন কাজ করেছেন যা হাজার হাজার পর্যটককে আকৃষ্ট করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ধানক্ষেতকে বিশাল ছবির ক্যানভাসে পরিণত করেছেন তিনি। খবর ডয়েচে ভেলের

ডয়েচ ভেলে জানিয়েছে, থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ চিয়াং রাইয়ের জমিতে ধান চাষের মাধ্যমে বিশাল ঘুমন্ত বিড়ালের ছবি এঁকেছেন দেশটির কারখানা শ্রমিক তানিয়াপং জাইখাম। মাঝেমাঝে চাষবাসও করেন। সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায় প্রায় এক হেক্টর জমিতে বিড়াল এঁকেছেন তিনি। ৩০ ডিসেম্বর সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে পুরো ধানক্ষেত। সবাই এসে যাতে অভিনব উপায়ে আঁকা বিড়ালের ছবি দেখতে পারেন সেজন্য চারপাশে ওয়াচ টাওয়ারও নির্মাণ করছেন জাইখাম।

থাইল্যান্ডে রেইনবো নামের ধানগাছে বিভিন্ন রঙের পাতা দেখা যায়। এর মধ্যে সবুজ, হলুদ, গাঢ় মেরুন এবং আরও কিছু ধানের পাতার রঙেই প্রায় এক হেক্টর জমিতে ঘুমন্ত ৩টি বিড়ালের ছবি এঁকেছেন তানিয়াপং জাইখামা। 

জিপিএস আর ড্রোনের সহায়তায় প্রথমে ওপর থেকে একটা স্কেচ এঁকে নিয়েছিলেন তানিয়াপং জাইখামা পরে সেই স্কেচ অনুযায়ী একেক জায়গায় একেক রঙের রেইনবো ধানের বীজ বুনে দেন। বীজ থেকে বের হয়ে গাছ যত বড় হয়েছে ততই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে বিড়ালের ছবি।

থাইল্যান্ডে রেইনবো নামের ধানগাছে বিভিন্ন রঙের পাতা দেখা যায়।

এখন সেই বিড়াল প্রদর্শনের অপেক্ষায়। তানিয়াপং জাইযাম আশা করছেন ৩০ ডিসেম্বরের পর অন্তত ১০ হাজার মানুষ সেখানে যাবেন ধানক্ষেত আর বিড়ালের ছবি দেখতে। বিড়ালের ছবি দেখতে হাজার হাজার পর্যটক, বিড়ালপ্রেমী, শিক্ষাবিদ এবং শিক্ষার্থী আসবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন

×