ঢাকা রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

আওয়ামী লীগ ডান্ডা মেরে টিকে থাকতে চায়: জোনায়েদ সাকি

আওয়ামী লীগ ডান্ডা মেরে টিকে থাকতে চায়: জোনায়েদ সাকি

জোনায়েদ সাকি - ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ১০:৪৫ | আপডেট: ২৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ১০:৪৫

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেছেন, আওয়ামী লীগ ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী দল। কিন্তু এ দলের বর্তমান নেতৃত্ব আইয়ুব-ইয়াহিয়া-টিক্কা খানের পথ ধরেছে। তারা ভোট ছাড়া ক্ষমতায় আছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে পিটিয়ে, গুম করে, মামলা, হামলা করে তারা ক্ষমতায় আছে। হাতকড়া, ডান্ডাবেড়ি পরে মানুষকে মায়ের জানাজায় অংশ নিতে হচ্ছে। আওয়ামী লীগ নিষ্ঠুরতার সীমা অতিক্রম করেছে। ডান্ডা মেরে তারা ২০৪০ সাল পর্যন্ত টিকে থাকতে চায়। কিন্তু তারা ভুলে গেছে, ডান্ডা মেরে এ দেশে টিকে থাকা যায় না। মানুষকে ভয় দেখিয়ে তারা টিকে থাকতে পারবে না।

শুক্রবার সন্ধ্যায় গণসংহতি আন্দোলনের ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের দুই দিনব্যাপী নারায়ণগঞ্জ জেলা সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ বক্তা ছিলেন সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক রফিউর রাব্বি ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক শ্যামলী শীল। ছাত্র ফেডারেশনের জেলা শাখার সভাপতি ইলিয়াস জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন গণসংহতি আন্দোলনের জেলা শাখার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, পপি রানী সরকার, মশিউর রহমান খান রিচার্ড, সৈকত আরিফ, তাকবীর হোসেন, ফারহানা মুনা প্রমুখ।

সাকি আরও বলেন, শুধু তত্ত্বাবধায়ক সরকার দিয়ে দেশের পরিবর্তন হবে না। রাষ্ট্র পরিচালনা পদ্ধতি সংস্কার করতে হবে। দুই কক্ষবিশিষ্ট সংসদ লাগবে। দুই কক্ষের মধ্যে ক্ষমতার ভারসাম্য লাগবে। যে ভোট বেশি পেল সে পুরো দেশের মালিক, বাকিরা কেউ না- এটা বাংলাদেশে আর চলবে না। ৩০০ আসনে ৩০০ জন এমপি নির্বাচিত হবেন। আর দলগুলোর মোট প্রাপ্ত ভোটের অনুপাতে দ্বিতীয় কক্ষে এমপি হবেন। এমপিরা নির্বাচিত হলেও তাঁরা স্বাধীনভাবে ভোট দিতে পারেন না। দলের নির্দেশে তাঁকে ভোট দিতে হয়। এর অবসান করতে হবে।

আরও পড়ুন

×