রাজনীতি

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের

এখানে সরকারের কী দোষ

প্রকাশ: ১১ নভেম্বর ২০১৭     আপডেট: ১২ নভেম্বর ২০১৭      

গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরে জনসভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের- সমকাল

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, 'বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেন, প্রধান বিচারপতিকে আমরা বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছি। আপিল বিভাগের বিচারপতিরা রাষ্ট্রপতিকে বলেছেন, তারা প্রধান বিচারপতির সঙ্গে একই বেঞ্চে বসবেন না। এখানে সরকারের কী দোষ?' 

তিনি আরও বলেন, 'প্রধান বিচারপতি বিদেশে গিয়ে পদত্যাগ করেছেন, এখানে সরকারের কোনো হাত নেই। তিনি সিঙ্গাপুর থেকে পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন। সেখানেতো আমাদের লোক নাই।'

শনিবার বিকেলে গাজীপুরের ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ মাঠে গাজীপুর মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষে এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

গাজীপুর জেলা আ.লীগের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম  মোজাম্মেল হক  জনসভার সভাপতিত্ব করেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মঞ্চে এসে হাত নেড়ে স্বাগত জানানোর সময় ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু ’স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে পুরো জনসভাস্থল। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'গণতান্ত্রিক উদারতাকে দুর্বলতা ভাববেন না। বিএনপির ক্ষমতায় আশা মানে আগুন সন্ত্রাস, লুটপাট আর জঙ্গিবাদের প্রবল উত্থান। বিএনপি নেত্রী আন্দোলনের ডাক দিয়ে টেমস নদীর পাড়ে সাড়ে তিন মাস কাটিয়ে এলেন। বিদেশে বসে আন্দোলনে ডাকে সফলতা আসে না।' 

তিনি আরও বলেন, 'বিএনপি নেতারা ঘরে বসে মিথ্যাচারের ভাঙা রেকর্ড বাজান। আন্দোলনের ডাক দিতে গিয়ে বলেন এ বছর না পরের বছর।' 

সেতুমন্ত্রী বলেন, 'বিএনপি এখন বাংলাদেশ নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে। আন্দোলনের ডাক দিয়ে ম্যাডাম চলে গেছেন লন্ডনে। তুরাগে যেমন জোয়ার নেই, বালু নদীতে জোয়ার নেই; তেমনি বিএনপির আন্দোলনে জোয়ার নেই। বিএনপি সাড়ে ৮ বছরে সাড়ে ৮ দিনও রাস্তায় নামতে পারেনি। বিএনপি নেতারা আন্দোলন ডেকে এসি ঘরে বসে টিভিতে হিন্দি সিরিয়াল দেখেন।'

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'চিহ্নিত কোনো সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজকে আওয়ামী লীগের সদস্য করা যাবে না।' 

তিনি বলেন, 'আগামী সিটি নির্বাচন হবে সেমিফাইনাল খেলা। আর জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে ফাইনাল খেলা।' 

জনসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. রহমত আলী,  পররাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা.দীপু মণি, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন রিমি, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমপি, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি জাহিদ আহসান রাসেল, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান, মহানগর আ’লীগের সভাপতি আজমত উল্লা খান, জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইকবাল  হোসেন সবুজ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

এ সময় আ ক ম  মোজাম্মেল হক, সিমিন হোসেন রিমি, জাহিদ আহসান রাসেল, মেহের আফরোজ চুমকিসহ শীর্ষ নেতারা আওয়ামী লীগ সদস্যপদ নবায়নের মাধ্যমে কার্যক্রমের সূচনা করেন।  

আরও পড়ুন

ঘরের মাঠে মস্কোয় বিধ্বস্ত রিয়াল

ঘরের মাঠে মস্কোয় বিধ্বস্ত রিয়াল

রাশিয়া নামক এক জুজু বুড়ির ভয় ভর করেছে রিয়ালের ওপর। ...

হারাচ্ছে জমি, অস্তিত্ব সংকটে সমতলের আদিবাসীরা

হারাচ্ছে জমি, অস্তিত্ব সংকটে সমতলের আদিবাসীরা

'জমি চাই মুক্তি চাই' স্লোগানে ১৮৫৫ সালে সাঁওতাল নেতা সিধু, ...

'কোল্ড আর্মসে' কক্সবাজার সৈকতে দুর্ধর্ষ হামলার ছক

'কোল্ড আর্মসে' কক্সবাজার সৈকতে দুর্ধর্ষ হামলার ছক

দুনিয়াব্যাপী কমান্ডো নাইফ এবং বিশেষ ধরনের ছুরি ও চাকু 'কোল্ড ...

সহিংসতা রোধে ইসিকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ আওয়ামী লীগের

সহিংসতা রোধে ইসিকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ আওয়ামী লীগের

দেশের বিভিন্ন স্থানে সৃষ্ট সহিংসতা ঠেকাতে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) আরও ...

গ্রেফতার হামলা বন্ধে সিইসির হস্তক্ষেপ চায় বিএনপি

গ্রেফতার হামলা বন্ধে সিইসির হস্তক্ষেপ চায় বিএনপি

প্রতীক বরাদ্দের পরও বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি, গ্রেফতার ও সন্ত্রাসী হামলার ...

বৃহত্তম সমাবেশ যুক্তরাজ্যে

বৃহত্তম সমাবেশ যুক্তরাজ্যে

১ আগস্ট ১৯৭১। যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের ট্রাফালগার স্কয়ারে দুপুর থেকেই ...

চট্টগ্রামে আমীর খসরুর প্রচারে হামলায় আহত ৫

চট্টগ্রামে আমীর খসরুর প্রচারে হামলায় আহত ৫

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর গণসংযোগে হামলার ...

২৪ থেকে ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে সেনা মোতায়েন

২৪ থেকে ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে সেনা মোতায়েন

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগামী ...