রাজনীতি

ঐক্যবদ্ধভাবে সরকারকে দাবি মানতে বাধ্য করার ঘোষণা

প্রকাশ: ০১ নভেম্বর ২০১৮     আপডেট: ০১ নভেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

খালেদা জিয়ার সাজা বাতিল ও তার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত গণঅনশনে বক্তব্য দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর -ফোকাস বাংলা

ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে ক্ষমতাসীন সরকারকে দাবি মানতে বাধ্য করার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। 

দলটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আন্দোলন আর লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে একাত্তরে যে চেতনা অর্জন করা হয়েছে, তা আবারও প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আন্দোলনের মধ্য দিয়ে এ সরকারকে পরাজিত করতে হবে।

রাজধানীর গুলিস্তানে মহানগর নাট্যমঞ্চে বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়ার সাজা বাতিল ও তার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত গণঅনশনে দলটির নেতারা এসব বক্তব্য দেন। 

সকাল ১০টা থেকে পাঁচ ঘণ্টার এ কর্মসূচিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ বিএনপি মহাসচিব ও স্থায়ী কমিটির সদস্যদের পানি পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান। কয়েক হাজার নেতাকর্মী এ অনশনে অংশ নেন। এ সময় কর্মীদের হাতে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের রায় বাতিলের দাবি সংবলিত প্ল্যাকার্ড ছিল। অনশনে একাত্মতা প্রকাশ করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটের নেতারাও অংশ নেন।

এ সময় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, গণতন্ত্র মানেই খালেদা জিয়া। আর খালেদা জিয়া মানেই গণতন্ত্র। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং গণতন্ত্রকে আলাদা করা যায় না। অথচ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তাকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিচারব্যবস্থা এখন সরকারের নিয়ন্ত্রণে। তার প্রমাণ খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে, তার সাজা বাড়ানো হয়েছে।

তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, মিথ্যা মামলায় সাজা বাড়িয়ে খালেদা জিয়ার মাথা নত করা যাবে না। তাকে যখন জানানো হলো, আপনার সাজা বাড়িয়ে দিয়েছে, তখন উনি বললেন, কত দিবে দিক, তবুও মাথা নত করব না।

স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, দেশে নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করতে হলে সাত দফা মানতে হবে। তা না হলে আগামীতে এ দেশে সংসদ নির্বাচন হবে না। খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া নির্বাচন হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য এই সংলাপের আয়োজন। কিন্তু একদিকে সংলাপ ও অন্যদিকে ব্যাপকভাবে গ্রেফতার; একদিকে সংলাপ, অন্যদিকে খালেদা জিয়ার সাজা পাঁচ বছর থেকে ১০ বছর- এগুলো খুব ভালো আলামত নয়। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুষ্ঠু নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে বলে জানান তিনি।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, সরকার খুব গরম ছিল- বিরোধী দল বলে কিছুই নেই, ওদের সঙ্গে কথা বলার দরকার নেই, সংলাপ হবে না। কিন্তু এখন সংলাপ ডাকতে হয়েছে। আবার এর মধ্যে খালেদা জিয়ার ওপর নির্যাতনও শুরু হয়েছে। ইতিহাস বলে, এসব নির্যাতন করে, পাঁচ বছরের সাজা ১০ বছর করে ও নতুন সাত বছরের সাজা দিয়ে কিছুই করা যাবে না। সাত দিনের মধ্যে ধুলোর মতো সব উড়ে চলে যাবে। 

তিনি বলেন, সংলাপ করে জনগণকে বিভ্রান্ত করে জেলের মধ্যে খালেদা জিয়াকে রেখে নির্বাচন করবেন- ওইসব ধান্দাবাজি চলবে না। সংলাপে নিষ্পত্তির আগে তফসিল ঘোষণা মেনে নেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন মান্না।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের সভাপতিত্বে এবং প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি ও সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদের পরিচালনায় গণঅনশনে দলের স্থায়ী কমিটির মির্জা আব্বাস, আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, সেলিমা রহমান, বরকত উল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহজাহান, এজেডএম জাহিদ হোসেন, আহমেদ আজম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, জয়নুল আবদিন ফারুক, আবদুস সালাম, আতাউর রহমান ঢালী, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শামা ওবায়েদ, কামরুজ্জামান রতন, নূরে আরা সাফা, শিরিন সুলতানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক জেএসডির আবদুল মালেক রতন, গণফোরামের মোশতাক আহমেদ, ২০ দলীয় জোটের শরিক ইসলামী ঐক্যজোটের অ্যাডভোকেট এমএ রকীব প্রমুখ নেতারা কর্মসূচিতে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য দেন। অনশন উপলক্ষে মহানগর নাট্যমঞ্চ প্রাঙ্গণের আশপাশে অতিরিক্ত পুলিশ ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়।

আরও পড়ুন

ট্রাম্প-কিম দ্বিতীয় বৈঠক ফেব্রুয়ারিতে

ট্রাম্প-কিম দ্বিতীয় বৈঠক ফেব্রুয়ারিতে

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম ...

বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাঙচুর তদন্ত করছে কুয়েত

বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাঙচুর তদন্ত করছে কুয়েত

বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাঙচুর এবং কর্মকর্তাদের নির্যাতনের ঘটনা তদন্ত করছে কুয়েত ...

আজ ঢাকার সড়ক ব্যবস্থাপনা যেমন

আজ ঢাকার সড়ক ব্যবস্থাপনা যেমন

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের নিরঙ্কুশ বিজয় উদযাপনে বিজয় সমাবেশ ...

আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ আজ

আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ আজ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের নিরঙ্কুশ বিজয় উদযাপনে বিজয় সমাবেশ ...

ইউএনও আসার খবরে বাবা-মেয়ে উধাও

ইউএনও আসার খবরে বাবা-মেয়ে উধাও

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বড়গাঁও ইউনিয়নে বড়গাঁও গ্রামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ...

ভূমির রাজস্ব যায় কই

ভূমির রাজস্ব যায় কই

ভূমি খাত থেকে আদায় হওয়া রাজস্বের একটি বড় অংশ সরকারি ...

ছয় বছরে প্রাণহানি ২৪০ নিখোঁজ দুই শতাধিক

ছয় বছরে প্রাণহানি ২৪০ নিখোঁজ দুই শতাধিক

২০১২ সালের ১২ মার্চ থেকে চলতি বছরের ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত ...

হাওরে পাখি নেই আগের মতো

হাওরে পাখি নেই আগের মতো

একসময় শীত এলেই পরিযায়ী পাখির কলরবে মুখর হতো নাসিরনগরের মেদীর ...