রাজনীতি

খালেদার বিচারের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করবে আদালত: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, দুর্নীতির অভিযোগে কারাগারে থাকা বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার নামে বিএনপি যে আন্দোলন করেছে তা নিজেদের মধ্যে বিশ্বাস আর সমন্বয়হীনতা ছিল। যে কারণেই আন্দোলন ছিল দুর্বল। খালেদার চলমান দুর্নীতির বিচারের ভবিষ্যৎ সরকার নয়, আদালতই নির্ধারণ করবেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর মৌচাকে বার্তা সংস্থা ইউএনবির কার্যালয়ে তাদের জেলা প্রতিনিধি সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি। তথ্যমন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মীর আকরাম উদ্দীন আহম্মদের পাঠানোর বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

ইউএনবি'র প্রধান সম্পাদক এনায়েতুল্লাহ খানের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ও অধ্যাপক সাখাওয়াত আলী খান।

তথ্যমন্ত্রী হাছান বলেন, গত দশ বছরে বিএনপি'র রাজনীতি খালেদা ও তারেক জিয়াকে অপরাধের বিচারের হাত থেকে বাঁচানো, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি, নির্বাচন বানচাল করার অপচেষ্টাতেই সীমাবদ্ধ ছিলো। জনগণের কল্যাণ হয় এমন কোনো কর্মসূচি ছিল না। তারা উল্টো জনগণকে পুড়িয়ে মেরেছে। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ধ্বংস করেছে। যে কারণে দলটি ক্রমেই জনগণ থেকে দূরে সরে গেছে।

বিএনপি'র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুহুল কবির রিজভী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে বিএনপি'র উপদেষ্টা পদগ্রহণের কথা বলায় তথ্যমন্ত্রীর মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, 'রিজভীর এমন বক্তব্য কতটা শালীন, তা ভাবা জরুরি। রিজভী প্রতিদিনই একটা না একটা সংবাদ সম্মেলন করে অশালীন কথা বলে লাইমলাইটে থাকার জন্য চেষ্টা করছেন। তার চতুরতা জনগণ ভালোই বুঝেন।

তথ্যমন্ত্রী তার বক্তৃতায় গণমাধ্যমকে সমাজের দর্পণ বলে অভিহিত করে বলেন 'বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন প্রতিহত করতে সরকার সকল গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানাচ্ছে। কারণ, গণতন্ত্রের জন্যই গণমাধ্যমকে স্বচ্ছ ও নিরাপদ রাখা জরুরি।

বিকেলে তোপখানা রোডে ঢাকাস্থ চট্টগ্রাম সমিতির কার্যালয়ে সমিতির আলোচনা সভা ও মেধাবী শিশু-কিশোরদের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন তিনি।


বিষয় : তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ