বিএনপির প্রতিটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিচার হবে: হানিফ

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০১৯     আপডেট: ১৮ জুলাই ২০১৯      

পাবনা অফিস

কথা বলছেন মাহবুব উল আলম হানিফ

বিএনপির প্রতিটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিচার করা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে গুলিবর্ষণ ও বোমা হামলা মামলায় দণ্ডপ্রাপ্তদের পক্ষ নিয়ে বিএনপি প্রমাণ করেছে দলটির উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশেই এ হামলা হয়েছিল। 

বৃহস্পতিবার পাবনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দিয়ে তিনি একথা জানান।

হানিফ বলেন, শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার ঘটনার সত্যতা ছিল বলেই ১৯৯৪ সালে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাবস্থায় মামলা নিতে বাধ্য হয়েছে। নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে অপরাধ প্রমাণ হওয়ায় আদালত তাদের সাজা দিয়েছেন। 

বিএনপিকে ‘সন্ত্রাসী দল ’ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, এ দেশের অসংখ্য মানুষ তাদের সন্ত্রাসের কারণে প্রাণ হারিয়েছে। সরকার তাদের প্রতিটি অপরাধের বিচার করে দেশ থেকে এ ধরনের অপরাধ চিরতরে নির্মূল করবে।

সম্প্রতি কুমিল্লা আদালতের এজলাসে হত্যাকাণ্ডকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা উল্লেখ করে হানিফ বলেন, বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিএনপি জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। এ সমস্ত মিথ্যাচার করার আগে বিএনপি নেতাদের আয়নায় মুখ দেখা উচিত। কারণ, তাদের শাসনামলে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় আদালতে বোমা হামলা করে ১২ জন আইনজীবীকে হত্যা করা হয়েছিল। 

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া সব হত্যাকাণ্ড ও ধর্ষণের ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি সরকার নিশ্চিত করবে বলেও জানান তিনি।

পরে শহরের দোয়েল কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গণে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে যোগ দেন তিনি। 

এ সময় হানিফ ছাড়াও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মোল্লা আবু কায়সার, সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথ এমপি,  কেন্দ্রীয় নেতা তানভীর শাকিল জয়, রফিকুল ইসলাম লিটন, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি, শামসুল হক টুকু এমপি, আহমেদ ফিরোজ কবির এমপি, জেলা যুবলীগ আহ্বায়ক আলী মর্তুজা বিশ্বাস সনিসহ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বিকেলে কাউন্সিল অধিবেশনে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক কমিটি গঠন হবে। 

উল্লেখ্য, প্রতিষ্ঠার পর প্রথমবারের মতো পাবনায় জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।