উন্নয়নের নামে লুণ্ঠন চলছে: রিজভী

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

রুহুল কবির রিজভী— ফাইল ছবি

জনগণের ভাগ্যের উন্নয়নের নামে 'বল্গাহীন লুণ্ঠন' চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, 'গণতন্ত্রের চাইতে উন্নয়নকে প্রাধান্য দেওয়ার নামে সরকার সব সামাজিক চুক্তি ভঙ্গ করে জনগণকে শৃঙ্খলিত করেছে। দেশের প্রায় আড়াই কোটি মানুষ তিনবেলা পেটভরে খেতে না পারলেও সরকার উন্নয়নের দোহাই দিয়ে গরিবের পেটে লাথি মারতেই গণতন্ত্রের কবর রচনা করেছে। জনগণের ভোটের অধিকার হরণ করেছে।'

তিনি বলেন, জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষিবিষয়ক সংস্থা (এফএও), শিশু তহবিল ইউনিসেফ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিওএইচও), আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিল (আইএফএডি) ও বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির উদ্যোগে 'বিশ্বের খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টি বাস্তবতা ২০১৯' শিরোনামে যৌথভাবে প্রণীত নতুন প্রতিবেদনে বলেছে– বাংলাদেশে ২ কোটি ৪২ লাখ মানুষ ভালোভাবে খেতে পায় না। পর্যাপ্ত খাবারের অভাবে বাংলাদেশে প্রতি ছয়জন মানুষের মধ্যে একজন অপুষ্টিতে ভুগছে। গত এক দশকে এদেশে অপুষ্টিতে ভোগা মানুষের সংখ্যা অন্তত ১০ লাখ বেড়েছে।

সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, 'দেশের এমন পরিস্থিতিতেও সরকার বলছে– দেশে কোনো হাহাকার নেই, অভুক্ত মানুষ নেই। জনগণের টুঁটি চেপে ধরা এই সরকারের চাপাবাজ মন্ত্রীরা বলছেন– বাংলাদেশ নাকি উন্নয়নে সিঙ্গাপুর, কানাডা ও ইউরোপের মতো উন্নত দেশে পরিণত হচ্ছে। এক বছরের মধ্যে স্পেন, থাইল্যান্ডের সমান হয়ে যাবে। দেশে কোনো গরিব নেই।'

রিজভী বলেন, 'মিথ্যা বলা মহাপাপ। আর এখন বিদ্যমান পরিস্থিতিতে সত্য বলা মহাভয়। মিথ্যা বলা যদি কোন 'শিল্প' হতো তাহলে অনর্গল মিথ্যা বলা এই সরকারের মন্ত্রী-নেতারা হতেন সেই শিল্পের নায়ক-মহানায়ক। রাষ্ট্রকে ধনীর তোষণে পরিণত করা হচ্ছে আর তার জনগণকে ভাতের মাড় খাওয়ানো হচ্ছে। আর ক্ষমতাসীনরা নিজেদের ভাগ্যের উন্নয়ন করছে।'

দেশবাসীর গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করে উন্নয়নের নামে বর্তমান সরকার জনগণকে বিভ্রান্ত করছে– এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, 'ক্ষমতা নিরুপদ্রব রাখতে গত দেড় বছর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে কারারুদ্ধ রাখা হয়েছে। বিচার বিভাগসহ প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ে দলীয় ক্যাডারদের নিয়োগ দিয়ে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। গণতন্ত্রের অভাবে শাসন কাঠামো ভেঙে পড়েছে।'

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূইয়া প্রমুখ।