১৫ আগস্টের ঘটনায় জড়িত আওয়ামী লীগ: ফখরুল

প্রকাশ: ১৯ আগস্ট ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর— ফাইল ছবি

১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতারা জড়িত ছিলেন বলে দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান কোনোভাবেই জড়িত ছিলেন না; জড়িত ছিলেন আওয়ামী লীগের লোকেরা– তারাই পরবর্তীকালে সরকার গঠন করেছেন, জাতীয় সংসদে গেছেন।

সোমবার স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শেরেবাংলা নগরে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ দীর্ঘকাল ধরে ১৫ আগস্টের ইতিহাসকে বিকৃত করার চেষ্টা করছে। এটা ধ্রুবতারার মতো সত্য– জিয়াউর রহমান কোনোমতেই কোনো হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। এটা ইতিহাস প্রমাণিত।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকরের ঢাকা সফরে বিএনপির প্রত্যাশা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'তার এ সফরে অমীমাংসিত সমস্যার সমাধানে আশাবাদী নই। খুব বেশি প্রত্যাশা করছি না। কারণ ১০ বছর ধরে শুনছি– আওয়ামী লীগ সরকারের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক সর্বোচ্চ পর্যায়ে আছে, খুব ভালো পর্যায়ে আছে। তবে এখন পর্যন্ত তিস্তা নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা পাইনি, সীমান্তে হত্যা বন্ধ হয়নি। দুই দেশের বাণিজ্য ঘাটতি পূরণ করার কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। কোনো সমস্যারই সমাধান হয়নি। তবে ভারতের সমস্যাগুলোর সমাধান হয়েছে। সেজন্যই খুব একটা আশাবাদী হতে পারছি না।'

ত্রিপুরায় বিমানবন্দর সম্প্রসারণের জন্য বাংলাদেশের কাছে জমি চাওয়ার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকার এখন পর্যন্ত এটাতে রাজি হয়নি। রাজি হওয়ার প্রশ্নই আসে না। কারণ দেশের জমি অন্য কাউকে দেওয়ার প্রশ্নই উঠতে পারে না।

চামড়া সংকটে বিএনপি জড়িত বলে শিল্পমন্ত্রীর বক্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অর্বাচীনের মতো এ ধরনের কথা বলা ছাড়া তাদের তো কিছু করার নেই।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন