কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশ: ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯     আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯      

কক্সবাজার অফিস

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের- সমকাল

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দলের ভেতরে তৈরি হওয়া আগাছা-পরগাছা পরিষ্কার করতে অ্যাকশন শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুধু ঢাকা নয় সারাদেশে এ অভিযান চলবে।

তিনি বলেন, অভিযানের মাধ্যমে সারাদেশে টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ, দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসীদের নির্মূল করা হবে। যত বড় মাস্তান হোক, যত বড় নেতাই হোক, যত বড় প্রভাবশালী হোক কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

শনিবার বিকেলে কক্সবাজারের পর্যটন গলফ মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফার সভাপতিত্বে প্রতিনিধি সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম, আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন- স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ সোহেল রানা টিপু, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, জাফর আলম এমপি, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হক সোহেল প্রমুখ।


ওবায়দুল কাদের বলেন, রোহিঙ্গাদের না ফেরাতে মিয়ানমারের হাতে অজুহাতের অস্ত্র তুলে দিচ্ছে বিএনপি। তারা আন্দোলন সংগ্রামে ব্যর্থ হয়ে বিদেশে বসে বাংলাদেশের সরকারকে হটানোর চেষ্টা করছে। গত দুই বছরে তারা দেশের বিরুদ্ধে বিদেশে বিভিন্ন রকম নালিশ করলেও রোহিঙ্গা ইস্যুতে কোনো কথা বলেনি। এখন তারা মিয়ানমারের হাতে অজুহাতের অস্ত্র তুলে দিচ্ছে রোহিঙ্গাদের না ফেরাতে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সম্মেলনে গেছেন রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমর্থন আদায়ের জন্য, মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টির জন্য। শেখ হাসিনা ও তার সরকার এ দেশের জনগণের সঙ্গে রয়েছে।

দলের ভেতর শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘যত বড় নেতাই হোক কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। টেন্ডারবাজ দুর্নীতিবাজ চাঁদাবাজ যে যেখানে আছ, সাবধান হয়ে যাও।’

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। এই ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে দলের নেতা কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা কর্মীরাই হচ্ছে দলের প্রাণ। আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে কক্সবাজার থেকেই প্রতিনিধি সম্মেলন শুরু হয়েছে। ঢাকার বাইরে সারা দেশে এই প্রতিনিধি সম্মেলন সম্পন্ন করা হবে।

বেলা তিনটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত চলা এই প্রতিনিধি সম্মেলনে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যায়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।