সরকার দুর্নীতি বন্ধে দু'জন চুনোপুঁটির নামে টোকাই ধরেছে: মির্জা আব্বাস

প্রকাশ: ০১ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ১৩ নভেম্বর ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মির্জা আব্বাস- সমকাল

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, সরকার দুর্নীতি বন্ধে দু'জন চুনোপুঁটির নামে টোকাই ধরেছে। এই টোকাইয়ের পকেট থেকে যদি এত টাকা বের হয়, তাহলে বাঘা বাঘা নেতাদের পকেট থেকে কত টাকা বের হবে- এটা দেশবাসী জানতে চায়।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে কৃষক দলের উদ্যোগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন। মির্জা আব্বাস বলেন, ক্ষমতাসীনদের দুর্নীতির কারণেই বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। এখন পেঁয়াজের কেজি ১২০-১৩০ টাকা। এক সচিব বলেন, উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই। পেঁয়াজের দাম কত টাকা হলে উদ্বিগ্ন হবেন- এটা প্রকাশ করলে জনগণ খুশি হতো।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ঘর থেকে শুরু শুদ্ধি অভিযানের বক্তব্যকে স্বাগত জানাই। খুব তাড়াতাড়ি রাঘববোয়ালদের ধরবেন- এটাও প্রত্যাশা করছি।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, ২০০৬ সালের পর থেকে আজ পর্যন্ত দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) অফিসে হিসাব দিতে দিতে, আদালতের বারান্দায় হাজিরা দিতে দিতে বিএপির নেতাকর্মীদের জান শেষ। বিএনপির নেতারা এক যুগ ধরে তো হিসাব দিচ্ছেনই। এখন সরকারের ব্যাপক লুটপাটের একটু হিসাব দেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, দুর্গাপূজা উপলক্ষে বাংলাদেশ থেকে ৫০০ টন ইলিশ উপহার হিসেবে ভারতে পাঠানো হয়েছে। ৫০০ টাকা কেজি হিসাবে সেখানে গেছে। খুব ভালো। বিনিময়ে ভারত ফারাক্কা বাঁধের ১০৯টি স্লুইসগেট খুলে দিয়েছে। এখন দেশ বন্যায় ডুবে যাবে। আবার পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিয়েছে।

কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য দেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সৈয়দ মেহেদি আহমেদ রুমি, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, কেন্দ্রীয় নেতা আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ।