ইভিএম ভোট চুরির যন্ত্র: আমীর খসরু

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী - ফাইল ছবি

আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী - ফাইল ছবি

সিটি নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিরোধিতা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) ভোট চুরি করার প্রকল্প ছাড়া কিছু নয়। এটি মানুষের ভোটাধিকার চিরতরে কেড়ে নেওয়ার যন্ত্র।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দল আয়োজিত '১/১১ প্রেক্ষাপট ও আজকের বাংলাদেশ' শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

আমীর খসরু বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের আগের রাতে ব্যালট বাপ ভর্তি করে যে ভোট ডাকাতির নির্বাচন হয়েছে, সেটা বাংলাদেশের জনগণসহ সারাবিশ্বের কাছে পরিস্কার। তারা বুঝতে পেরেছে, ব্যালট বাপে তাদের আর নিয়ন্ত্রণ নেই, কিন্তু ইভিএমে নিয়ন্ত্রণ আছে। তাই তারা এখন ইভিএম নিয়ে এসেছে।

ইভিএম নিয়ে নির্বাচন কমিশনের অবস্থানের কড়া সমালোচনা করে তিনি আরও বলেন, বিশ্বের দুইশ' দেশের মধ্যে পাঁচ-ছয়টি দেশে ইভিএমে নির্বাচন হয়। ওই পাঁচ-ছয়টি দেশের সরকার ও নির্বাচন কমিশন প্রশ্নবিদ্ধ নয়। সেখানে প্রিন্টেড রিসিপ্ট দেওয়া হয়, যেটা দিয়ে চ্যালেঞ্জ করা যায়। বাংলাদেশে সে সুযোগ নেই। নির্বাচন কমিশনেও ইভিএম নিয়ে ভিন্নমত রয়েছে, তারপরও তারা এটা চালু করছে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদিন বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলনের কোনো কর্মসূচি নেই। সরকার হাজার হাজার নেতাকর্মীকে মামলা ও গ্রেপ্তার করেছে। আইনি লড়াই করে তাদের বের করেছি। আইনজীবীরা আদালতেও প্রধান বিচারপতিকে ঘেরাও করে আন্দোলন করেছেন; কিন্তু নেতাকর্মীরা কেউ কি খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলন করে একটি গুলি খেয়েছেন? যারা বেশি বক্তব্য দেন, তারা ক'জন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মাঠে নেমেছেন, কারাগারে গিয়েছেন? এ সময় তিনি ফেব্রুয়ারিতে ফের খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আইনি লড়াই চালিয়ে যাওয়ার কথা জানান।

জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সালাহউদ্দিন খানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন এলডিপির (একাংশ) মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম, স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মো. রহমতুল্লাহ প্রমুখ।