নয়াপল্টন থেকে প্রেসক্লাব পর্যন্ত বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন মির্জা ফখরুল- ফোকাস বাংলা

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন মির্জা ফখরুল- ফোকাস বাংলা

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আগামী শনিবার রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করবে বিএনপি। ওইদিন দুপুর ২টায় রাজধানীর নয়াপল্টন থেকে শুরু হয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবে গিয়ে এই বিক্ষোভ মিছিল শেষ হবে।

বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এর আগে মির্জা ফখরুলের সভাপতিত্বে বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনগুলো এবং ঢাকা বিভাগীয় বিএনপির নেতৃবৃন্দদের এক যৌথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আগামী ১৫ ফ্রেরুয়ারি বিক্ষোভ মিছিল হবে। দুপুর ২টায় রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নেতাকর্মীরা সমবেত হবে। এখান থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবে শেষ হবে।

গত শনিবার ক্ষমতাসীনদের প্রতিহিংসার নির্মম শিকার বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানী নয়াপল্টনে সমাবেশ করেছে বিএনপি। ওই সমাবেশ থেকে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শনিবার সারাদেশে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেন ফখরুল।

বিক্ষোভ মিছিলের অনুমতির বিষয়ে জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, বিক্ষোভ মিছিলের অনুমতির দরকার হয় না। নিয়ম ও আইন আছে যেটা- অবগত করা হয়। আমরা সেই অবগত করবো।

আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি বিক্ষোভ মিছিলেন আগে সমাবেশ করবেন কি না- এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সমাবেশ বলতে যা বুঝায় সেটা আমরা করবো না। তবে বিক্ষোভ মিছিলের আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখা হবে। পরে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে প্রেসক্লাবে শেষ করা হবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, যতগুলো পদ্ধতি এবং সংবিধানে যা আছে, তার সবই আমরা করেছি এবং করছি। এখন জনগণকে সাথে নিয়ে আমরা দেশনেত্রীকে মুক্ত করার চেষ্টা করবো।

আরেক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা আইনের সবগুলো বিষয় মানার চেষ্টা করেছি। আর এখনও করে যাচ্ছি। আমরা পরিষ্কারভাবে বলেছি যে, এটা আইনের বিষয় না। তাকে সম্পূর্ণ বেআইনীভাবে আটক করে রাখা হয়েছে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে আটক রাখা হয়েছে। সুতরাং সিদ্ধান্তটা রাজনৈতিক হতে হবে। অর্থ্যাৎ, এই দখলদার সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

সংসদ নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে কোন আলোচনা হয়েছে কি না- সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা সব সময় তো জানাচ্ছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি এবং সংসদে জানানো হয়েছে। এখন সম্পূর্ণ বিষয়টাই সরকারের হাতে।

সরকারের কাছে বেগম জিয়ার প্যারোলে মুক্তির আবেদনের বিষয়ে ফখরুল বলেন, এটা সম্পর্কে আমরা ঠিক বলতে পারবো না। কারণ এটা আমরা বলিনি। আমাদের এবং জনগণের কাছে মুখ্য বিষয় হচ্ছে, ম্যাডামের জীবন রক্ষা করা। কারণ এটা সুপরিকল্পিতভাবে হত্যার দিকে নিয়ে যাচ্ছে। আমরা তাকে মুক্ত করতে চাই এবং তাকে বাঁচাতে চাই।

এ সময় বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদু, রুহুল কবির রিজভী, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী-খান সোহেল, মীর সরাফত আলী সপু, আব্দুস সালাম আজাদ, আফরোজা আব্বাস অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং ঢাকা বিভাগীয় বিএনপির নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।