কৃষক যেন ধানের ন্যায্য মূল্য পায়: খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০      

অনলাইন ডেস্ক

ফাইল ছবি

কৃষক যেন ধানের ন্যায্য মূল্য পায় সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার জন্য খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরামর্শ দিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

বুধবার দুপুরে বরিশাল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে বরিশাল জেলার খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে অভ্যন্তরীণ আমন সংগ্রহ বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় এ পরামর্শ দেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, কৃষকের কথা চিন্তা করে বর্তমান সরকার নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। প্রথমবারের মতো আমন মৌসুমে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে সাড়ে ছয় লক্ষ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে। যাতে কৃষক ধান উৎপাদনে অনুৎসাহিত না হয়ে আরো উৎসাহিত হয়। বিনা হয়রানিতে কৃষক যেন ধান দিতে পারে, কৃষক যেন তার ন্যায্য মূল্য পায়।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০০৯ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে দেশের প্রতিটি সেক্টরে অত্যন্ত সফলভাবে সকল কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে, যার ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশ বিশ্বের কাছে রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, সারা বিশ্বে প্রধানমন্ত্রীর যোগ্য নেতৃত্ব প্রশংসিত হয়েছে, তিনি বিভিন্ন পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। আর এ সকল কাজের পেছনে আপনাদেরও অনেক অবদান রয়েছে। এখন এসব উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডকে টেকসই করতে হবে। আর তার জন্য প্রয়োজন সকলের আন্তরিকতা, সদিচ্ছা, ন্যায়পরায়ণতা।

মন্ত্রী আরও বলেন, এবছর অ্যাপসের মাধ্যমে কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করা হয়েছে। আগামী বোরো মৌসুমে কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহে সব উপজেলায় মোবাইল অ্যাপস চালু করা হবে।

বরিশাল বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মো. ইয়ামিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ডক্টর মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম, বরিশাল জেলার জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান, বরিশাল জেলার পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম, বরিশাল বিভাগীয় খাদ্য নিয়ন্ত্রক জনাব ফারুক হোসেন, বরিশাল জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, চালকল মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দসহ খাদ্য ও কৃষি বিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তাবৃন্দ।

এর আগে সকাল ১০টার দিকে মন্ত্রী পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলায় অবস্থিত নবনির্মিত দুমকি খাদ্যগুদামের উদ্বোধন করেন।

এ সময় খাদ্য সচিব মোসাম্মৎ নাজমানারা খানুম, বরিশাল বিভাগের আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক ফারুক হোসেন, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকসহ স্থানীয় প্রশাসনের এবং খাদ্য বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে তিনি দুমকি উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত এক নাগরিক সমাবেশে যোগ দেন। দুমকি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি