ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনের বিএনপি মনোনিত প্রার্থী শেখ রবিউল আলম রবি বলেছেন, জনমতের ভিত্তিতে, ভোটাধিকারের ভিত্তিতে জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করার সুযোগ দেওয়া হলে ধানের শীষের বিজয়ের ব্যাপারে কোনো শঙ্কা নেই।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে শেরে বাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, সহ-সভাপতি নবী উল্লাহ নবী, ধানমন্ডি থানা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি কাবিরুল হায়দার চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদত শাহাদাত হোসাইন সৈকত, শ্রমিক দলের সভাপতি আবু কাওছারসহ বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে দলের প্রতিষ্ঠাতা কবরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন রবি। 

নির্বাচনে রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে কোনো সহযোগিতা পাচ্ছেন না- এমন অভিযোগ করে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, 'দেশের জনগণ তাদের সাংবিধানিক ও রাজনৈতিক অধিকার চায়। এ জন্যই বিএনপি সংগ্রাম করছে, লড়াই করছে, আন্দোলন-সংগ্রাম করছে এবং নির্বাচনে থাকছে।'

ঢাকা-১০ আসনের জনগণের কেমন সাড়া পাচ্ছেন- এ প্রশ্নের জবাবে শেখ রবি বলেন, 'এ এলাকার জনগণের সঙ্গে ২৮ বছরের সর্ম্পক। আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেড়িয়ে এ এলাকার তৃণমূল পর্যায়ে রাজনীতি করছি। তাদের সঙ্গে আমার আত্মিক সর্ম্পক। সকলে আমাকে চেনে, জানে। তাদের প্রতি আমার আস্থা আছে। তাদের প্রতিনিধি হিসেবে আমাকে দেখতে চায়। এই দেখার সুযোগ সরকার গ্রহণ করবে কিনা এটি হলো প্রশ্ন। সরকার যদি জনমতের ভিত্তিতে, ভোটাধিকারের ভিত্তিতে জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করার সুযোগ দেয় তাহলে ধানের শীষের বিজয়ের ব্যাপারে কোনো শঙ্কা নাই।'

উপনির্বাচনে ধানের শীষের এই প্রার্থী বলেন, 'আওয়ামী লীগ জনবিছিন্ন দল। আমার আসনে আরও বেশি জনবিছিন্ন। এদের কাছ থেকে মানুষ কিছু আশা করে না। মানুষ ভোট দেওয়ার সুযোগ পেলে ধানের শীষকে বিজয়ী করবে। আমরা জনগণের কাছে যাচ্ছি, জনগণকে সোচ্চার করছি। জনগণের অনীহা রয়েছে বর্তমান রাষ্ট্র ব্যবস্থার প্রতি। ক্ষোভ রয়েছে, অনাস্থা রয়েছে। সেটি তারা নির্বাচনে রায়ের মাধ্যমে প্রকাশ করবে। তবে জনগণের মাঝে সুষ্ঠু ভোট নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। আমি তাদের অভয় দিচ্ছি, সাহস জোগাচ্ছি।'