ত্যাগীদের মূল্যায়ন করতে হবে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশ: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০     আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিভিন্ন পর্যায়ের উপকমিটিতে ত্যাগী নেতাকর্মীদের এবং দুঃসময়ে দলের জন্য যারা ত্যাগ স্বীকার করছেন তাদের মূল্যায়ন করতে হবে, কমিটি করার সময়  কোনওভাবেই স্বজনপ্রীতি  দেখানো যাবে না।

বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সভা শেষে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী দুপুরে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত ৬১টি ইউনিয়ন, তিনটি জেলা পরিষদ এবং ৯টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে যারা প্রার্থী হতে আগ্রহী তাদের ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ এবং জমা দিতে হবে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পর্যায়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদারেরও আহবান জানান। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সম্পাদকগণ যারা এখনো উপকমিটি জমা দেয়নি তাদেরকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যানদের সাথে পরামর্শ করে কমিটি জমা দিতে হবে।

সারাদেশে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদারের লক্ষ্যে আটটি বিভাগীয় কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক ছাড়াও সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যগণ এসব কমিটি গঠনে দায়িত্বে থাকবেন এবং বিভিন্ন বিভাগীয় কমিটিতে কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সদস্যগণও থাকবেন।

তিনি বলেন, তৃণমূল পর্যন্ত দলকে পুনর্গঠন করার লক্ষ্যে যে সকল জেলা ও মহানগর সম্মেলন হয়নি তাদের কমিটি গঠন করতে হবে, তবে তার আগে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ে সম্মেলনের কাজ শেষ করতে হবে।

এরই মধ্যে যে সকল উপজেলা, জেলা, মহানগর এবং সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন হয়েছে তাদের সেপ্টেম্বরের ১৫ তারিখের মধ্যে কমিটি গঠন করে জমা দেওয়ার কথা থাকলেও অনেকেই জমা দেননি, যারা এখনো  জমা দেয়নি তাদের আগামী সাত দিনের মধ্যে চূড়ান্ত কমিটি জমা দিতেই হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলার কমিটি করে জেলা সম্মেলন করার নির্দেশ দেন।

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মবার্ষিকী পালনের লক্ষ্যে সারাদেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মিলাদ মাহফিল, দোয়া এবং সীমিত আকারে সর্বপর্যায়ে আলোচনার মাধ্যমে দিবসটি পালনের আহবান জানান ওবায়দুল কাদের।

দেশের মসজিদ, মন্দির, গীর্জা ও প্যাগোডায় বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনার আয়োজনের অনুরোধ জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।