খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সহায়তায় আগ্রহী যুক্তরাজ্য

প্রকাশ: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০     আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০   

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার ররার্ট চ্যাটারটন ডিকসন- ফাইল ছবি

ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার ররার্ট চ্যাটারটন ডিকসন- ফাইল ছবি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎিসা সহায়তায় আগ্রহ প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য।

বুধবার ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত 'ডিক্যাব টকে' অংশ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে এ কথা জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার ররার্ট চ্যাটারটন ডিকসন।

তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বাংলাদেশ সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা করাতে চাইলে যুক্তরাজ্য তার ব্যবস্থা করবে।  

ঢাকায় কর্মরত কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সংগঠন ডিক্যাব এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ডিক্যাব সভাপতি আঙুর নাহার মন্টির সভাপতিত্ব ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ডিক্যাবের সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর রহমান।

ব্রিটিশ হাইকমিশনার ররার্ট চ্যাটারটন ডিকসন বলেন, অক্সফোর্ডের কভিড টিকার ট্রায়ালে বাংলাদেশ না থাকলেও এটি পেতে অগ্রাধিকার পাবে
তিনি আরও বলেন, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সদস্যদের গণহত্যার স্বীকারোক্তি আন্তর্জাতিক আদালতে রাখাইন গণহত্যার বিচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

রোহিঙ্গা সংকট সম্পর্কে ব্রিটিশ হাইকমিশনার বলেন, এখন পর্যন্ত রাখাইনের রোহিঙ্গা পরিস্থিতির উন্নতি দেখা যাচ্ছে না। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধের বিচারের বিষয়কে যুক্তরাজ্য সক্রিয়ভাবে সমর্থন করছে।

বাংলাদেশে রোহিঙ্গা সংকটের চাপ কমাতে মানবিকতার পরিচয় দিয়ে কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের একাংশকে যুক্তরাজ্যের ভূমিতে আশ্রয় দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা যায় কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন এই সংকট সমাধানে মূল লক্ষ্য হচ্ছে রোহিঙ্গাদের তাদের দেশ মিয়ানমারে নিরাপদে ও নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করে ফেরার ব্যবস্থা করা। তাদের বর্তমান আশ্রয় থেকে অন্য কোনো আশ্রয়ে নেওয়ার মধ্য দিয়ে এ সংকটের সমাধান হবে না। অতএব রোহিঙ্গাদের নিজের দেশে প্রত্যাবাসনের জন্যই বাংলাদেশের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করছে যুক্তরাজ্য।