গণজাগরণের অপেক্ষা করছে বিএনপি: গয়েশ্বর

প্রকাশ: ২০ নভেম্বর ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

গণজাগরণের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনের জন্য অপেক্ষা করছে বিএনপি। শুক্রবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক দোয়া মাহফিলে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এ কথা বলেন। 

তিনি বলেছেন, অর্জনে কোথায় মৃত্যু হবে, কোথায় হবে না, তা নিয়ে বিএনপি নেতারা ভাবেন না। তারা শুধু একটা সুযোগ, একটা পরিবেশের অপেক্ষায় রয়েছেন।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৬তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত এই কর্মসূচিতে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় আরও জানান, গণজাগরণের মাধ্যমে এই সরকারকে বিদায় দিয়ে একাত্তরের গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন বাস্তবায়নে তারা বদ্ধপরিকর।

গয়েশ্বর বলেন, যার জন্মদিন পালন করছি, তার পক্ষ থেকে বলা আছে, কেক কাটা নয়, দোয়া এবং পারলে গরিবদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হোক। কিন্তু আবেগ তো এই নিষেধ মানে না। আজ কম করে হলেও ১০ হাজার কেক কাটা হবে। কারণ, আবেগের জায়গায় বাস্তবতা পরাজিত হয়।

তিনি বলেন, জাতীয়তাবাদের একমাত্র ঠিকানা তারেক রহমান। খালেদা জিয়া এখন জেলবন্দি থেকে গৃহবন্দি। এই অবস্থার পরিবর্তন ঘটাতে পারে এই তরুণ ও যুব সমাজ। যারা যুগে যুগে পরিবর্তন ঘটিয়েছে। পরে তারেক রহমানের দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। কেন্দ্রীয় দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত দলের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সের পরিচালনায় দোয়া মাহফিলে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান। 

এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সারোয়ার, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আমিনুল হক, মীর সরফত আলী সপু প্রমুখ।

পরে নয়াপল্টনে মহানগর বিএনপি কার্যালয়ে তারেক রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে তিনটি কেক কাটেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল ও সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, সহসভাপতি ইউনুস মৃধাসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

দেশের বিভিন্ন স্থানেও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের জন্মদিন পালিত হয়।