বিতর্ক ওঠায় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক উপকমিটির বিশেষজ্ঞ সদস্যপদ থেকে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিনকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তার বদলে সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরীকে ওই পদে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য সচিব ড. সেলিম মাহমুদ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিনকে অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নয়, সুপ্রিম কোর্টের একজন সিনিয়র আইনজীবী ও একজন আইনজ্ঞ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। সংবিধান ও প্রচলিত আইন, বিধিবিধান ও প্রথা অনুসরণ করেই তাকে উপকমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। এতে আইন ও প্রচলিত প্রথার কোনো ব্যত্যয়ও ঘটেনি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, অনেকে এ বিষয়টিকে ভুলভাবে ব্যাখ্যা দিয়ে উপকমিটিকে বিতর্কিত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছেন। অ্যাটর্নি জেনারেল পদ নিয়েও তারা সংবিধান ও আইনের সম্পূর্ণ ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে মনগড়া কথা বলছেন, যা সম্পূর্ণ অনাকাঙ্ক্ষিত।

শনিবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক থেকে অ্যাটর্নি জেনারেল পদটিকে সাংবিধানিক আখ্যা দিয়ে আওয়ামী লীগের উপকমিটিতে এ এম আমিন উদ্দিনকে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। সোমবার দলের সংবাদ সম্মেলনেও এ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।




বিষয় : আওয়ামী লীগ উপকমিটি

মন্তব্য করুন