বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেছেন, দেশের জনগণের প্রতি ক্ষমতাসীন সরকারের কোনো দায়বদ্ধতা নেই। তারা দায়বদ্ধ দেশের লুটেরা ধনিক শ্রেণির কাছে। সাধারণ কৃষক, শ্রমিক, জনতার ওপর শোষণ চালিয়ে লুটেরাদের সম্পদ বৃদ্ধির ব্যবস্থা করাই তাদের একমাত্র কাজ।

শুক্রবার রাজধানীর শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে শ্রম আইনের শ্রমিক স্বার্থবিরোধী সব ধারা অবিলম্বে সংশোধনের দাবিতে শ্রমিক সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র আয়োজিত সমাবেশে তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারিতে মানুষের দুর্ভোগ ও দুর্দশাকে পুঁজিতে পরিণত করা হয়েছে। ফলে করোনার অসুখের চেয়েও ভয়ংকর হয়ে দেখা দিয়েছে এর অর্থনৈতিক ও সামাজিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। দ্রব্যমূল্যের চরম ঊর্ধ্বগতি, দারিদ্র্য, ছাঁটাই, বেকারত্ব, অনাহার, চিকিৎসা না থাকা ইত্যাদি আসল অসুখের চেয়ে ভয়ানক রূপ ধারণ করেছে। এ অবস্থা আর চলতে দেওয়া হবে না।

মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত দেশের সংবিধান ঘোষণা করেছে জনগণকে সব ধরনের শোষণ থেকে মুক্তি দেওয়ায় হবে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অন্যতম মৌলিক দায়িত্ব। অথচ শোষণের হাতিয়ার হিসেবে সংবিধানবিরোধী একটি শ্রম আইন মালিকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। শ্রেণিসংগ্রাম তীব্র করার মধ্য দিয়েই এই শোষণব্যবস্থার পতন ঘটাতে হবে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মন্টু ঘোষের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন কাজী রুহুল আমীন, জলি তালুকদার, ইদ্রিস আলী, সাদেকুর রহমান শামীম, জিয়াউল কবির খোকন, আকলিমা আক্তার ডলি, কে এম মিন্টু, এম এ শাহীন, মঞ্জুর মঈন, শফিকুল ইসলাম প্রমুখ। পরিচালনা করেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন। সমাবেশ শেষে একটি মিছিল মহানগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

মন্তব্য করুন