আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, যারা ধর্মের নামে অরাজকতা করে তাদের হাত থেকে ধর্মকে রক্ষা করতে হবে। ধর্ম ব্যবসায়ীরা ধর্মের নাম করে অধর্মের কাজ করছে। এসব ব্যবসায়ীর হাত থেকে ধর্মকে রক্ষা করতে হবে। তিনি বলেন, সহিংসতায় জড়িত হেফাজতে ইসলামের সবাইকে খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে। জামায়াত-শিবির হোক, হেফাজত বা বিএনপিই হোক, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে অপশক্তিকে রোধ করা হবে।

হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক সোনারগাঁয়ের একটি রিসোর্টে 'দ্বিতীয় স্ত্রী'সহ হেনস্তার ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ কার্যালয়, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের দুই নেতার বাড়িঘরসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর করে সংগঠনটির কর্মীরা।

বুধবার মাহবুবউল আলম হানিফের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল এসব স্থাপনা পরিদর্শন করে। পরে দুপুরে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় মদিনা টাওয়ারে একটি রেস্তোরাঁয় সংবাদ সম্মেলনে হানিফ এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, ধর্মের নামে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা বাধাগ্রস্ত বরদাশত করা হবে না। যারা ধর্মের নামে তাণ্ডব চালায়, তাদের পাল্টা আঘাত করা হবে। এ জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকতে বলেছেন তিনি।

প্রতিনিধি দলে আরও ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ূয়া, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো. বাদল, সহসভাপতি আব্দুল কাদির প্রমুখ।