নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে গ্রেপ্তার নেতাদের মুক্তি দাবি করেছে সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি (জাপা)। দলের নেতাকর্মীদের হয়রানি বন্ধ করাও দাবি জানিয়েছে। বুধবার যৌথ বিবৃতিতে এসব দাবি জানিয়েছেন জাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদের এবং মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।

হেফাজতের সহিংসতা ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বাড়িতে হামলার মামলায় সোনারাগাঁও উপজেলা জাপার সভাপতি আবদুর রউফ এবং পৌর জাপার সহ-সভাপতি ফারুক আহমেদ তপনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আবদুর রউফ উপজেলা শম্ভপুরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান। ফারুক আহমেদ তপন পৌরসভার কাউন্সিল।

গত ৩ এপ্রিল হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে সোনারগাঁওয়ের একটি রিসোর্টে দ্বিতীয় স্ত্রীসহ আটকের পর সহিংসতার ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা তিনটি মামলায় জাপার দুই নেতাকে আসামি করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মামলায় আসামি হয়েছেন জাপার ৩৫ নেতাকর্মী।

জিএম কাদের এবং জিয়াউদ্দিন বাবলু বিবৃতিতে বলেছেন, ৩ এপ্রিল রিসোর্টে হামলার ঘটনায় জাতীয় পার্টির কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়। অথচ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে জাপার দুই জনপ্রতিনিধিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্তত ৩৫ জনকে আসামী করে হয়রানী করা হচ্ছে।

বিবৃতিতে জাপার শীর্ষ নেতারা বলেছেন, রমজানের পবিত্র মাস এবং করোনা মহামারিতে জাপার নেতাকর্মীরা ঘরে থাকতে পারছেন না। প্রতিরাতে পুলিশ তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হানা দিচ্ছে। নিরপরাধ এবং সহিংসতার সঙ্গে জড়িত নয় এমন কোন ব্যক্তিদের অযথা গ্রেপ্তারও হয়রানি বন্ধ করতে হবে সরকারকে।


মন্তব্য করুন