করোনা মহাসংকটেও সরকার মানুষ বাঁচানোর জন্য নয়, ক্ষমতা বাঁচানোর জন্য কাজ করছে বলে অভিযোগ করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেছেন, এত বড় সংকটেও সরকারের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। তারা টিকা নিশ্চিত করতে পারছে না। তারা এখনও মুখে উন্নয়নের বুলি আওড়ায়। উন্নয়নের নামে লুটপাট অব্যাহত আছে। 

শুক্রবার নাগরিক ছাত্র ঐক্য আয়োজিত ইফতার ও আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মান্না আরও বলেন, সরকার গত ১৪ মাসে আইসিইউ বেড, অপিজেন, এমনকি সাধারণ বেড পর্যন্ত বাড়াতে পারেনি। করোনা মোকাবিলায় যে দু-একটি উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, সেখানেও চুরির মহোৎসব চলছে। অব্যাহত আছে বিরোধী শক্তির ওপর দমন, পীড়ন, নির্যাতন, মামলা, রিমান্ড।

তিনি বলেন, সরকার ছাত্রদের দমন করতে সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে। তারা ছাত্র অধিকার পরিষদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেনকে গ্রেপ্তার করে দু'দিনের রিমান্ডে নিয়েছে। এর আগে ডাকসুর সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক আকতার হোসেনসহ প্রায় অর্ধশত নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে, রিমান্ডে নিয়েছে। তারা ছাত্রদের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা বলে ১৪ মাস ধরে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছে। কিন্তু বিনা কারণে গ্রেপ্তার করে হাজার হাজার মানুষের ভিড়ে কোর্টে তুলছে, রিমান্ডে নির্যাতন করছে। নেতাকর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি চান তিনি।

ছাত্রদের উদ্দেশে মান্না বলেন, এই সরকারের হাতে দেশ নিরাপদ নয়। তারা ক্ষমতায় থাকলে দেশে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হবে না, দরিদ্ররা খাবার পাবে না, দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে যাবে, ছাত্রদের নির্যাতন অব্যাহত থাকবে। এই দমন-পীড়নের মধ্যেও নিজেদের সংগঠিত করতে হবে, প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- দলের সমন্বয়ক শহীদুল্লাহ কায়সার, নাগরিক ছাত্র ঐক্যের সভাপতি মোশাররফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম।