বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা জরুরি। দেশের হাসপাতালে তার চিকিৎসা যথেষ্ট নয়। এ জন্য খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেছেন, মানুষ বুঝেছে যে, আপনারা গায়ের জোরে বিএনপি চেয়ারপারসনকে তিলে তিলে মারতে এবং রাজনীতি থেকে বিতাড়িত করতে চান।

রোববার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম '৭১-এর উদ্যোগে খালেদা জিয়ার রোগমুক্তির জন্য দোয়া মাহফিল ও দুস্থ-অসহায়দের মধ্যে ঈদসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব বলেন। সংগঠনের সভাপতি ঢালী আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ ও মৎস্যজীবী দলের সদস্য সচিব আবদুর রহিম।

গয়েশ্বর বলেন, সরকার দুর্নীতির মাধ্যমে পাহাড়সমান টাকা বিদেশে পাচার করেছে। এই টাকাগুলো দেশে আনুন। যত দিন পর্যন্ত করোনাভাইরাস থেকে দেশ মুক্ত না হয়, তত দিন অসহায়, দুস্থ ও শ্রমজীবী মানুষকে অনুদান দিন। তাদের বাঁচাতে উদ্যোগ নিন। যে টাকা লুটপাট করেছেন, তার ১০ ভাগের এক ভাগ শ্রমজীবী মানুষকে দিলেও তাদের না খেয়ে মরতে হবে না।

তিনি বলেন, আজকে একদিকে চলছে মহামারি, অন্যদিকে লকডাউন। কী ধরনের লকডাউন, তা-ও জানি না। এটা খোলা থাকবে, ওটা খোলা থাকবে না। অর্থাৎ এখানেও স্বাস্থ্যবিধির ব্যাপারে বৈষম্য সৃষ্টি করা হয়েছে। কিন্তু শ্রমজীবী মানুষ কী করবে? লকডাউনে ঘরে থাকা ও স্বাস্থ্যবিধি মানা প্রয়োজন। কিন্তু শ্রমজীবী মানুষ ঘরে থাকলে না খেয়ে মরবে।

বিষয় : গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য

মন্তব্য করুন