করোনা সংকটকালে ওয়াসার পানির দাম ৫ শতাংশ বৃদ্ধির ঘোষণায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে বামপন্থি দলগুলো। মঙ্গলবার পৃথক বিবৃতিতে এসব দলের নেতারা পানির দাম বৃদ্ধিকে গণবিরোধী আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে ওয়াসার সেবার মান বৃদ্ধির পাশাপাশি গণবিরোধী সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ওয়াসার এমডির অপসারণ চেয়েছেন তারা।

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান এক বিবৃতিতে বলেন, বর্তমান সরকার গত ১৩ বছরে ১৪ বার পানির দাম বৃদ্ধি করেছে, যা নগরবাসীর জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। সরকার ওয়াসা বোর্ডের সদস্যদের সিদ্ধান্তকে পাশ কাটিয়ে একজন দুর্নীতিবাজকে একযুগ ধরে ওয়াসার এমডি পদে বহাল রেখে পানি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে।

বিবৃতিতে তিনি নগরের সব এলাকায় পর্যাপ্ত সুপেয় ও নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার দাবি জানান। সেই সঙ্গে পানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ ও নিরাপদ সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার দাবিতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য ঢাকা নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক পৃথক বিবৃতিতে বলেন, করোনা দুর্যোগের মধ্যে পানির দাম বৃদ্ধি অন্যায়, আমলাতান্ত্রিক ও চরম দায়িত্বহীন পদক্ষেপ। এই দুর্যোগকালে মানুষ যখন নানাদিক থেকে প্রচণ্ড কষ্টে দিন পার করছেন, তখন ওয়াসা বোর্ডের অনেকের মতামত অগ্রাহ্য করে যুক্তরাষ্ট্রে বসে ওয়াসার এমডি তাকসিম এ খানের স্বেচ্ছাচারী মনোভাবের কারণে পানির দাম বৃদ্ধি করা হলো। মানুষের ক্ষোভের বিষয় আমলে না নিয়ে ওয়াসার এমডি যা খুশি তাই করে যাচ্ছেন। এখন মাসের পর মাস তিনি কীভাবে যুক্তরাষ্ট্রে থেকে ওয়াসার চাকরি করেন, সেটাও এক বড় প্রশ্ন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

মন্তব্য করুন