জাতীয় পার্টির প্রয়াত চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের মৃত্যুবার্ষিকীর দিনে তিনটি সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারণ করায় নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপত্তি জানিয়েছে জাতীয় পার্টি। 

মঙ্গলবার সকালে প্রধান নির্বাচন কমিশন (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে তারা।

দলটির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সিইসির সঙ্গে স্বাক্ষাৎ করে স্বারকলিপি জমা দেন।

ইসি ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী গত ২ জুন ঢাকা-১৪, কুমিল্লা-৫ ও সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে। 

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এসব আসনের উপনির্বাচনে ভোট গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ জুলাই।

২০১৯ সালের এই দিনে মারা যান সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদ।

সিইসির সঙ্গে বৈঠক শেষে মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘আগামী ১৪ জুলাই প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। ওই দিনেই তিনটি জাতীয় সংসদের উপনির্বাচেনর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। এদিন জাতীয় পার্টিও নেতা কর্মীরা নির্বাচন করার জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকবে না। বিষয়টি সিইসিকে বলা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সিইসিসহ অন্যান্য যারা ছিলেন তারা তারিখটা খেয়াল করতে পারেননি বলে আমাদের জানিয়েছেন। এ বিষয়ে কি করা যায় তা তারা করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সিইসি বলেছেন-তিনি একা কিছু করতে পারবেন না। পুরো কমিশন বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

১৪ তারিখেই যদি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, তাহলে জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে কিনা জানতে চাইলে বাবলু সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটা এখনই বলতে পারছি না। এ বিষয়ে আমাদের চিন্তা-ভাবনা করতে হবে।’

জাপার স্মারকলিপিতে বলা হয়, গত বছর (২০২০) এইচএম এরশাদের মৃত্যু বার্ষিকীর দিন ১৪ জুলাই বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনে উপনির্বাচন দেয়া হয়ছিল। তখন তারা প্রতিবাদ জানালে কমিশন থেকে বলা হয়েছিল বিষয়টি জানা ছিল না। দুঃখের বিষয় এবারও একই দিনে ঢাকা-১৪, কুমিল্লা-৫ ও সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।