বাংলাদেশে পাকিস্তানপন্থার রাজনীতি পুনঃপ্রতিষ্ঠার পথে বাধা দূর করতেই জিয়াউর রহমান ‘প্রহসনমূলক বিচারে’ কর্নেল তাহেরকে হত্যা করেছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

মঙ্গলবার জাসদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও মুক্তিযুদ্ধের ১১ নম্বর সেক্টর কমান্ডার কর্নেল আবু তাহের বীর উত্তমকে মিথ্যা মামলায় প্রহসনমূলক বিচারে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যার ৪৫তম বার্ষিকী পালন করে জাসদ। 

‘তাহের দিবস’ উপলক্ষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে শহীদ কর্নেল তাহেরের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে হাসানুল হক ইনু এ কথা বলেন। 

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বাংলাদেশে পাকিস্তানপন্থার রাজনীতি পুনঃপ্রতিষ্ঠার পথে বাধা দূর করতেই জিয়াউর রহমান ‘মিথ্যা মামলায় ‘প্রহসনমূলক বিচারে’ ঠাণ্ডা মাথায় ফাঁসিতে ঝুলিয়ে কর্ণেল তাহেরকে হত্যা করেন। মুশতাক-জিয়ার হাত ধরে দেশে পাকিস্তানপন্থার রাজনীতি যেভাবে জেঁকে বসেছিল, সেই পাকিস্তানপন্থার রাজনীতিই আজ বাংলাদেশের রাজনীতি ও সমাজে বিষবৃক্ষের মত অবস্থান করছে। ’

হাসানুল হক ইনু বলেন, পাকিস্তানপন্থার রাজনীতি, জঙ্গিবাদ, মৌলবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, দুর্নীতি, লুটপাট এবং বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবেলার সংগ্রামের পথেই কর্নেল তাহেরের স্বপ্ন সমাজতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পথে এগিয়ে যেতে হবে। 

অনুষ্ঠানে এ সময় জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার বলেন, ‘শহীদ কর্নেল তাহের জাসদসহ বাংলাদেশের সমাজ পরিবর্তনের রাজনীতির লড়াকু নেতাকর্মীদের বাতিঘর।’

এ ম্মরণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন জাসদের সহ-সভাপতি বীর শফি উদ্দিন মোল্লা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদের চৌধুরী, আব্দুল্লাহিল কাইয়ূম, মো. মোহসীন, রোকনুজ্জামান রোকন, সদস্য সাইফুজ্জামান বাদশা, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ সেলিম, জাহিদুল আলম, সহ-সম্পাদক মফিজুর রহমান বাবুল ।