নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, সরকার গণটিকার নামে প্রহসন করেছে। একদিন দলীয় লোকদের কয়েকজনকে টিকা দিয়ে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। জনগণকে নিয়ে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সরকার অভিভাবকদের সঙ্গে তামাশা করছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে টালবাহানা করবেন না। এখনই খুলে দিন।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচিতে মাহমুদুর রহমান মান্না এসব কথা বলেন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা ও ছাত্র-শিক্ষকদের টিকা দেওয়ার দাবিতে এর আয়োজন করে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক ফোরাম।

সংগঠনের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মো. সেলিম ভূঁঁইয়ার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ডাকসুর সাবেক জিএস খায়রুল কবির খোকন, এজিএস নাজিমুদ্দিন আলম, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, বিকল্প ধারার সভাপতি অধ্যাপক নুরুল আমিন বেপারী, সাংবাদিক নেতা এম আব্দুল্লাহ, কাদের গনি চৌধুরী, সৈয়দ জয়নাল আবেদিন মেসবাহ, কৃষিবিদ চৌধুরী আবদুল্লাহ ফারুক, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ ইসতিয়াক আজিজ উলফাত, সাদেক খান, মৎস্যজীবী দলের সম্পাদক আবদুর রহিম, শিক্ষক নেতা দেলোয়ার হোসেন, মো. জাকির হোসেন, অধ্যক্ষ আবদুর রহমান, অধ্যাপক আবদুল আউয়াল, অধ্যাপক কাজী মাঈনুদ্দীন, অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া, হারুনর রশীদ গাজী প্রমুখ।

শওকত মাহমুদ বলেন, সরকার চায় না করোনা দূর হোক। করোনা বিদায় করতে হলে সরকারকে ক্ষমতা থেকে বিদায় করতে হবে। সভাপতির বক্তব্যে অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁঁইয়া বলেন, আগামী ৩১ আগস্টের মধ্যে ছাত্রছাত্রীদের টিকা দিয়ে ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া না হলে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক ফোরামের পক্ষ থেকে আরও কঠিন কর্মসূচি দেওয়া হবে।